সর্বশেষ
শনিবার ৭ই আশ্বিন ১৪২৫ | ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮

পৃথিবীর সবচেয়ে ভয়াবহ স্থান!

শুক্রবার, জানুয়ারী ২৩, ২০১৫

73907301_1422014461.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :
অনেক সময় আমাদের সর্বোচ্চ চেষ্টা থাকার পরও বৈজ্ঞানিক প্রচেষ্টাগুলো পরিকল্পনা অনুযায়ী হয় না। এক্ষেত্রে মাটির নিচে থাকা গর্ত খুলে দেয় রহস্যের বেড়াজাল।

তেমনি একটি গর্তের সন্ধান মিলল তুর্কেমেনিস্থানে। সেখানের দিওয়াজ গ্রামের অংশকে বলা হয় নরকের দরজা। কারণ এই গ্রামের নিকটে মরুভূমির মাঝখানে ২৩০ ফিট চওড়া একটি অগ্নি জ্বালামুখ রয়েছে। যা প্রকৃতপক্ষে ভূ-গর্ভস্থ প্রাকৃতিক গ্যাস নির্গমনের জন‌্য প্রাকৃতিক চাপেই তৈরি হওয়া একটি অগ্নি জ্বালামুখ। এই জ্বালামুখ সৃষ্টির পিছনে অবশ্য মানুষের হাত রয়েছে।

আজ থেকে ৪০ বছর আগে ১৯৭৫ সালে সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়ন প্রাকৃতিক গ্যাস অনুসন্ধানের জন্য এখানে ড্রিলিং শুরু করেছিল। কিন্তু সেখানে ড্রিলিং মেশিনের রিংগুলো খসে পড়ে যার কারণে আশংকাজনক হারে মিথেন গ্যাস ছড়িয়ে পড়ে। গবেষকরা মনে করেছিলেন এটি কয়েক ঘন্ট জ্বলে থেমে যাবে, কিন্তু ৪০ বছর ধরে এটি এখনও জ্বলছে।

প্রতিবছর অনেক দর্শক আসে এটি দেখার জন‌্য। ২০১০ সালে তুর্কেমেনিস্থানের প্রেসিডেন্ট ঘোষণা দিয়েছিলেন এই গর্তটি ভরাট করে ফেলবেন। কিন্তু এটি করতে গেলে আন্তর্জাতিক গ‌্যাস পাইপ লাইন ব্যাহত হতে পারে বলে গর্তটি আর ভরাট করা হয়নি। তুর্কেমেনিস্থার প্রাকৃতিক গ্যাস মজুদে বিশ্বে পঞ্চম অবস্থানে রয়েছে।


ঢাকা, শুক্রবার, জানুয়ারী ২৩, ২০১৫ (বিডিলাইভ২৪) // এ এম এই লেখাটি ৫৭২৫ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন