সর্বশেষ
বৃহঃস্পতিবার ৯ই ফাল্গুন ১৪২৪ | ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

এন্টার্কটিকার গভীরে প্রাণের খোঁজ, বিস্মিত বিজ্ঞানীরা

সোমবার ২৬শে জানুয়ারী ২০১৫

1594246187_1422278032.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :
বরফে ঢাকা মহাদেশ এন্টার্কটিকা। এখানে সবখানে শুধু বরফ আর বরফ। আর এ এলাকার বাসিন্দা হিসেবে শ্বেত ভাল্লুক, পেঙ্গুইন আর শ্বেত শেয়াল ছাড়াও যে অন্য কোনো প্রাণী পাওয়া মুশকিল।

সেখানে বরফের প্রায় দুই হাজার ৪শ’ ২৭ ফুট নিচে জীবাণু বা পরজীবী ছাড়া অন্য কোনো জলজ প্রাণী থাকবে, এটা বিজ্ঞানীরা স্বপ্নেও ভাবেননি বলে জানিয়েছে বিজ্ঞান বিষয়ক পত্রিকা নেচার।

ভাবার কথাও না! কারণ যেখানে মাত্র পানির ৩২ ফুট নিচেই জলজ প্রাণীর দেখা মেলে না, সেখানে বরফের এত নিচে জলজ্যান্ত মাছ আরাম-আয়েশ করে খেয়েদেয়ে দিব্যি বেঁচে থাকবে, এটা সত্যিই চাঞ্চল্যকর একটি ঘটনা। সেটাই ঘটলো সম্প্রতি।

ইউনিভার্সিটি অব নেব্রাস্কা লিঙ্কনের ইঞ্জিনিয়ারিং টিম সম্প্রতি একটি গবেষণা চালায় এন্টার্কটিকার ওপর। তারা এ অনুসন্ধানের জন্য হট ওয়াটার ড্রিল ও পানির নিচে চলাচলের  জন্য রোবটিক যান পরিচালনা করেন। বরফ খুঁড়ে তারা রোবটিক যানটিকে নিচে পাঠান।

এ গবেষণার সহযোগী নর্দান ইলিনয় ইউনিভার্সিটির ভূ-তাত্ত্বিক রোজ পাওয়েল জানান, এ ঘটনায় তারা খুবই বিস্মিত।

হয়তো অনেক প্রাণীই এরকম ছড়িয়ে-ছিটিয়ে রয়েছে পুরো এন্টার্কটিকার তলদেশ জুড়ে, যা এখনও আবিষ্কৃত হয়নি বলেও জানান তিনি।

বরফের নিচে পাঠানো ডিপ-এসসিআইএনআই নামের এ রোবটটি শুধু বরফজলে ভেসে বেড়ায়নি, ধারণ করেছে মাছের ছবিও। প্রায় কুড়ি মিনিট পানির নিচ থেকে রোবটটি কয়েক রকম মাছ, চিংড়ি ও কিছু অমেরুদণ্ডী প্রাণীর ছবি তুলে এনেছে।

যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশন্যাল সায়েন্স ফাউন্ডেশনের তত্ত্বাবধানে সূর্যের আলো ছাড়া কিভাবে প্রাণীরা সেখানে দিব্যি বেঁচে রয়েছে সেটি খতিয়ে দেখছেন গবেষকরা।

ঢাকা, সোমবার ২৬শে জানুয়ারী ২০১৫ (বিডিলাইভ২৪) // কে এইচ এই লেখাটি 5772 বার পড়া হয়েছে