সর্বশেষ
সোমবার ৯ই আশ্বিন ১৪২৫ | ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮

একজন মিডিয়া মোড়ল ও তার বিশ্ব রাজনীতি নিয়ন্ত্রণ‏

রবিবার, মে ১৭, ২০১৫

860381446_1431833656.jpeg
বিডিলাইভ ডেস্ক :
রুপার্ট মারডক, একজন আমেরিকান ইহুদী, বিশ্বের মিডিয়া মোগল হিসেবে পরিচিত তিনি। ফক্স নিউজ, স্কাই নিউজ, স্টার গ্রুপসহ পুরো দুনিয়ায় তার মালিকানাধীন তিনশ'র ও বেশি টিভি চ্যানেল রয়েছে। সেই সাথে রয়েছে দুইশ'র মতো পত্রিকা।

বলা হয়ে থাকে রুপার্ট মারডক না জন্মালে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের হলোকাস্টে যে ৬০ লাখ ইহুদী মারা গেছে (কেউ ১ লাখ ৬০ হাজার থেকে ৬ লাখ বলেন), বিশ্ববাসীকে এটা বিশ্বাস করানো যেতনা। তার মালিকানাধীন ইলেকট্রনিক্স ও প্রিন্ট মিডিয়া এত এত প্রচারণা চালিয়েছে যে মানুষ এখন এটাই বিশ্বাস করছে, সেই সাথে রুপার্ট মারডক না জন্মালে উপসাগরীয় যুদ্ধ হতোনা, ইরাক-ইরান যুদ্ধ হতোনা, এমনকি বলা হয়ে থাকে রুপার্ট মারডক না থাকলে ইউএসএ ২০০৩ এ ইরাক আক্রমণ করতো না।

রুপার্ট মারডক না থাকলে জর্জ ডব্লিউ বুশ মার্কিন প্রেসিডেন্ট হতে পারতেন না, প্রেসিডেন্ট হতে পারতেন না ইউকে'র টনি ব্লেয়ার।

রুপার্টের মালিকানাধীন মিডিয়া হাউজগুলোই উপরের ঘটনাগুলোর সফলতা লাভের পিছনে ক্রীড়ানকের ভূমিকা পালন করেছে।

বিশ্বের মিডিয়া অঙ্গনে জাঁদরেল এই নেতা জীবনে যে স্থানেই হাত রেখেছেন সেটাতে ফুল ফুটিয়েছেন, তার জীবনে ব্যর্থতা বলে কোনো শব্দ ছিলনা…কিন্তু রুপার্ট মারডক জীবনে দুইটি জায়গায় বিশাল ধাক্কা খান। প্রথমটি হলো তার মিডিয়াকে চীনে সম্প্রসারণের প্রচেষ্টা, পুরো দুনিয়ায় তার মিডিয়া হাউজগুলো ছড়িয়ে দিতে পারলেও তিনি চীনে এসে প্রথম বাধার সম্মুখীন হন।

চীন সরকার প্রথমে তার মালিকানাধীন দুটি চ্যানেলকে সম্প্রচারের বৈধতা দিলেও মাত্র ছয় মাসের মাথায় চ্যানেল দুটি বন্ধ করে দেন। চীনা কর্তৃপক্ষকে রাজি করতে শত শত কোটি ডলার ব্যয় করেও যখন কাজ হচ্ছিল না। তখন চীনের প্রতি তার দরদ আছে এটি প্রমাণে তিনি এক চীনা নারীকে বিয়ে করেন।

রুপার্ট মারডক চীনে ব্যর্থ হলেও মিডিয়া জগতে তার যে সুনাম ছিল তাতে এতটুকু ব্যাঘাত সৃষ্টি হয়নি। কিন্তু রুপার্ট মারডক তার জীবনের সবচেয়ে কলঙ্কজনক ধাক্কাটি খান ২০১০ এ ব্রিটেনে। তার দীর্ঘ ৫ দশকের অর্জিত সুনাম এক নিমিষে গুঁড়িয়ে দেন মাত্র তের বছর বয়সী এক কিশোরী। ওই কিশোরী দাবি করে তার ফোন কোনো এক নিউজ মিডিয়া হ্যাক করেছে, তার কয়েকদিন পর ওই কিশোরী আত্মহত্যা করলে তার বাবা-মা পুলিশকে জানায় তার মেয়ে মৃত্যুর আগে বলেছে তার ফোন কোন মিডিয়া হ্যাক হয়েছিল।

পুলিশ আঁটঘাঁট বেধে তদন্তে নামে। তদন্তে পুলিশ প্রমাণ পায় রুপার্ট মারডকের মালিকানাধীন একটি বিশ্ববিখ্যাত ট্যাবলয়েড পত্রিকা 'নিউজ অব দ্য ওয়ার্ল্ড' ওই কিশোরীর ফোন হ্যাকিংয়ে জড়িত ছিল। এক সপ্তাহের মাথায় রুপার্ট মারডক তার কয়েকশতর্ষী 'নিউজ অব দ্য ওয়ার্ল্ড' বন্ধ ঘোষণা করেন। তার মালিকানাধীন 'নিউজ কর্পোরেশন' এর হেড রেবেকা ব্রুকস গ্রেফতার হন। মারডক জিজ্ঞাসাবাদের শিকার হন। রুপার্ট নিহত কিশোরীর পরিবারকে ৩০ লাখ ইউরো ক্ষতিপূরণ ও প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইবেন এই শর্তে নিষ্কৃতি পান।

সেই রুপার্টের কলঙ্ককে পুঁজি করে ক্ষমতায় আসেন ক্যামেরন। এই ঘটনায় রুপার্ট মারডক ব্রিটেনে এমন একটি ঘৃনিত ব্যক্তিতে পরিণত হয়েছেন যে, আজকের দিনে ১০ নং ডাউনিং স্ট্রিটে নামের শেষে 'মারডক' আছে এমন কেউ ফোন করলে মোট ছয়জন ব্যক্তি ছয়বার তার নাম, পরিচয় নথিবদ্ধ করে রাখেন।

ঢাকা, রবিবার, মে ১৭, ২০১৫ (বিডিলাইভ২৪) // আর এস এই লেখাটি ৫১০৩ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন