সর্বশেষ
রবিবার ৫ই ফাল্গুন ১৪২৪ | ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

ফিনল্যান্ডে উচ্চশিক্ষার সুযোগ

রবিবার ২০শে নভেম্বর ২০১৬

2030939950_1479622865.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :
শিক্ষাব্যবস্থার দিক থেকে বিশ্বে এক নম্বর র‌্যাংকিংয়ে রয়েছে ফিনল্যান্ড। ইউরোপের জার্মানি, ফিনল্যান্ড এবং নরওয়েতে উচ্চশিক্ষায় টিউশন ফি নেই। যা আমাদের জন্য একটা বড় সুযোগ। তাছাড়া এই সুবিধার মাধ্যমে একজন শিক্ষার্থীর পড়াশোনার মান যেমন যুগোপযোগী হয়, তেমনি পাওয়া যায় ফিনল্যান্ড সরকারের পক্ষ থেকে আর্থিক সহায়তা।

ফিনল্যান্ডের শিক্ষাব্যবস্থার সঙ্গে দেশের অনেক পার্থক্য। এখানে মুখস্থভিত্তিক পড়াশোনা না করিয়ে ব্যবহারিক পড়াশোনা করানো হয়। অনেক বেশি বাস্তবতার নিরিখে পড়াশোনা করানো হয়, যা পরবর্তী কর্মজীবনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

ফিনল্যান্ডে এই বছর টিউশন ফি না থাকলেও আগামী বছর থেকে এই সুযোগটি আর থাকছে না। তবে আগামী বছর থেকে তারা স্কলারশিপের ব্যবস্থা করেছে। যে কেউ স্কলারশিপের আবেদন করে ফিনল্যান্ডে আসতে পারে।

যারা ফিনল্যান্ডে পড়তে চায় তাদের জন্য
উন্নত শিক্ষাব্যবস্থা এবং জীবনযাত্রার উচ্চ মানের জন্য ফিনল্যান্ড সব সময়ই বিদেশি শিক্ষার্থীদের কাছে পছন্দের ছিল।
- ফিনল্যান্ডে স্নাতকোত্তর পড়তে আসার জন্য আইইএলটিএস পরীক্ষায় ভালো স্কোর প্রয়োজন।
- সাধারণত নভেম্বর-ডিসেম্বর মাসে আবেদন প্রক্রিয়া শুরু হয়, যা জানুয়ারি পর্যন্ত থাকে।

www.Studyinfinland.fi ওয়েবসাইটে ফিনল্যান্ডে পড়াশোনার যাবতীয় তথ্য আছে। ফিনল্যান্ডের সব বিশ্ববিদ্যালয়ের লিংক এবং অ্যাপ্লিকেশনের যাবতীয় তথ্য পাওয়া যাবে। ফিনল্যান্ডে মাস্টার্স ও পিএইচডি করছেন এমন বাংলাদেশি ছাত্ররা মিলে ফেসবুকে Bangladeshi Incoming Students Finland নামে গ্রুপ করেছেন, যা ফিনল্যান্ডে আসতে ইচ্ছুক শিক্ষার্থীদের জন্য সহায়ক হিসেবে কাজ করবে। এই গ্রুপে অ্যাপ্লিকেশন থেকে ভিসা হওয়ার আগ পর্যন্ত যাবতীয় তথ্য দিয়ে সিনিয়র বাংলাদেশি শিক্ষার্থীরা সহযোগিতা করেন বিভিন্নভাবে।

যেহেতু আগামী বছর থেকে স্নাতকোত্তরে ১২,০০০-১৬,০০০ ইউরো টিউশন ফি চালু হচ্ছে, তাই ফিনল্যান্ডে পড়তে এলে অবশ্যই স্কলারশিপ নিয়ে পড়তে আসা উচিত হবে।

ঢাকা, রবিবার ২০শে নভেম্বর ২০১৬ (বিডিলাইভ২৪) // টি এ এই লেখাটি 2304 বার পড়া হয়েছে