সর্বশেষ
সোমবার ১৩ই ফাল্গুন ১৪২৪ | ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

কোলাহল থেকে মুক্তি পেতে ঘুরে আসুন 'বাংলা বিচ'

সোমবার ৩০শে জানুয়ারী ২০১৭

1021837136_1485785817.jpg
বিডিলাইভ রিপোর্ট :
'বাংলা বিচ'– স্থানীয় নাম খেজুরতলা বিচ। জায়গাটার নাম খেজুরতলা হলেও তেমন কোনো খেজুরগাছের দেখা মিলবে না। এক সময় বাঁধের পাশে ছিল সারিসারি খেজুর গাছ, যা এখন বিলীন হয়ে গেছে।

মূলত যারা কোলাহল বা জনসমুদ্র এড়িয়ে সাগরপাড়ে একান্ত কিছু সময় কাটাতে চান তাদের জন্য অসাধারণ একটি জায়গা।

যদিও ছুটির দিন ব্যতীত এই বিচে তেমন একটা লোকসমাগম হয় না। তারপরও একেবারেই জনশূন্যও নয়। আশপাশের অনেকেই অবসর কাটাতে বা সকাল বিকেল হাঁটাহাঁটি করতে আসেন এখানে।

কীভাবে যাবেন
চট্টগ্রামের যেকোনো বাসস্টপেজ থেকে সহজেই যেতে পারেন অনিন্দ্য সুন্দর এই বিচে। একেখান-অলংকার/বহদ্দারহাট/নিউমার্কেট-রেলস্টেশন থেকে সরাসরি সিএনজি নিয়ে যেতে পারবেন (ভাড়া ২০০-২৫০ টাকা) অথবা কাঠগড়গামী লোকালবাস বা মিনিবাসে করে স্টিলমিল বাজার নামতে হবে (ভাড়া ১৫-২০ টাকা)।

এরপর পশ্চিম দিকের রাস্তা থেকে রিকশা নিয়ে খেজুরতলা বেড়িবাঁধ (ভাড়া ২০ টাকা)। বাঁধে উঠলেই দেখতে পাবেন আপনার সেই কাঙ্ক্ষিত বিচ।

বাঁধের ওপর দিয়ে কিছুটা দক্ষিণে হাঁটলেই পাবেন স্লুইসগেট আর পাথর বসানো সেই পরিচিত বাঁধ। আর উত্তর পাশে গেলে দেখতে পাবেন সুন্দরবনের মতো ম্যানগ্রোভ বন, দেখা মিলবে মাটির উপরে গাছের শ্বাসমূল।

থাকা-খাওয়া
জায়গাটা পর্যটন এরিয়া না হওয়ায় এর আশপাশে তেমন ভালো কোনো খাওয়ার হোটেল বা থাকার ব্যবস্থা নেই। ছোটখাটো কিছু দোকান আছে, চা-নাস্তা খাওয়ার মতো। তবে ভালোমানের খাওয়ার জন্য আপনাকে স্টিলমিল বাজার আসতে হবে।

আর এখানে রাত কাটানোর মতো তেমন কোনো প্লেস নেই। নিতান্ত বাধ্য হলে ফ্রি-পোর্ট মোড়ে আছে হোটেল মুন ইন্টারন্যাশনাল। অথবা আগ্রাবাদ-জিইসি-নিউমার্কেটেও ভালো মানের আবাসিক হোটেল আছে। 

ঢাকা, সোমবার ৩০শে জানুয়ারী ২০১৭ (বিডিলাইভ২৪) // এ এম এই লেখাটি 2458 বার পড়া হয়েছে