bdlive24

'জনগণের কথা চিন্তা করে সিদ্ধান্ত নেয়া উচিত'

মঙ্গলবার জুন ১৩, ২০১৭, ০২:২৫ পিএম.


'জনগণের কথা চিন্তা করে সিদ্ধান্ত নেয়া উচিত'

বিডিলাইভ রিপোর্ট: জাতীয় সংসদে বাজেট আলোচনায় অংশ নিয়ে ব্যাংকে স্থায়ী আমানতের বিপরীতে আবগারি শুল্ক বাড়ানো যৌক্তিক নয় বলে মন্তব্য করেছেন সরকার ও বিরোধী দলের এমপিরা। তারা বলেন, এরই মধ্যে সংসদে অনেক এমপি এটা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন। সংসদ ও সংসদের বাইরে এ নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা হচ্ছে। তাই জনগণের বিরুদ্ধে গিয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া ঠিক নয়।

একই সঙ্গে তারা বিষয়টি নিয়ে অর্থমন্ত্রীকে জেদ না ধরার আহ্বান জানান। বিরোধী দল জাতীয় পার্টির এমপিরা প্রস্তাবিত বাজেট বাস্তবায়ন নিয়েও সংশয় প্রকাশ করেন। এছাড়া ভ্যাট হার পুনর্বিবেচনার অনুরোধ করেছেন সরকারদলীয় এক এমপি। সোমবার সংসদে প্রস্তাবিত বাজেটের ওপর সাধারণ আলোচনায় অংশ নিয়ে তারা এসব কথা বলেন।

একই সঙ্গে ব্রিটিশ পার্লামেন্টে বিজয়ী তিন বাঙালি কন্যাকে অভিনন্দন জানান তারা। বগুড়া থেকে নির্বাচিত আওয়ামী লীগের এমপি আবদুল মান্নান বলেন, বাজেটে বলা হয়েছে, উন্নয়নের মহাসড়কে বাংলাদেশ। এটা অত্যন্ত যুক্তিযুক্ত। ১৬ কোটি মানুষের জন্য এ বাজেট বড় নয় বলে মনে করি। যদিও বিরোধী পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, এটা অত্যন্ত বড় বাজেট। তিনি বলেন, স্থায়ী আমানতের বিপরীতে আবগারি শুল্ক বাড়ানো হয়েছে। সব এমপি এটা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন। সংসদ ও সংসদের বাইরেও এ নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা হচ্ছে। এর আগে যে পরিমাণ শুল্ক কাটা হতো, তা সহনীয় পর্যায়ে ছিল। এখন বর্ধিত করায় মানুষের মধ্যে সন্দেহ-সংশয় তৈরি হয়েছে। তাই এটা প্রত্যাহার করা উচিত। আবদুল মান্নান বলেন, অর্থমন্ত্রী সিলেটে বলেছেন, আবগারি শুল্ক প্রত্যহারের কোনো পরিকল্পনা নেই। আমি বলি, এখানে জেদ ধরার কোনো কারণ নেই। আওয়ামী লীগ মানুষের জন্য কাজ করে। ভোটের রাজনীতি করে। তাই জনগণের বিরুদ্ধে গিয়ে কোনো সিদ্ধান্ত নেয়া ঠিক নয়। তিনি বলেন, ভ্যাটের পক্ষে আমি, তবে যে হারে ভ্যাট বসানো হয়েছে, তা পুনর্বিবেচনার অনুরোধ জানাব।

বিএনপির সমালোচনা করে তিনি বলেন, ইফতার পার্টির নাম করে খালেদা জিয়া প্রতিদিন যেভাবে কথা বলছেন তাতে অবাক হই। খালেদা জিয়া বলেছেন, হাসিনা মার্কা কোনো নির্বাচন হবে না। তাহলে কি আগামীতে খালেদা জিয়া মার্কা নির্বাচন হবে? নির্বাচন হবে সংবিধান অনুযায়ী। মান্নান বলেন, বিএনপি ক্ষমতায় যেতে চায় কিনা, তা নিয়ে আমার সন্দেহ রয়েছে। দেড় বছর পর নির্বাচন হবে। এরই মধ্যে অনেক বিদেশি তৎপর হয়েছেন। বার্নিকাটের সঙ্গে দুর্ভাগ্যজনকভাবে আমাদের ইলেকশন কমিশন একমত পোষণ করেছে। ৫ জানুয়ারির নির্বাচনকে তারা গুরুত্ব দিয়েছে। গোপন জরিপে খালেদা জিয়া নাকি জেনেছেন আওয়ামী লীগ আর ক্ষমতায় আসতে পারবে না। দলের নেতাকর্মীদের দেশ ছেড়ে চলে যেতে হবে। তার এ কথায় তাকে আমি উন্মাদ না বললেও তার আপার চ্যানেলে কোনো সমস্যা হয়েছে, এটা নিশ্চিত। তাদের দলের মহাসচিব ফখরুল ইসলাম বলেছেন, আওয়ামী লীগ ৩০টির বেশি সিট পাবে না। এটা বলার উনি কে। সিট তো দেবে জনগণ। জনপ্রিয়তার দিক দিয়ে বিবেচনা করলে খালেদা জিয়ার অবস্থান শেখ হাসিনার হাঁটু ও তার নিচে বলে মনে করি। ক্ষমতাসীন দলের এই এমপি বলেন, নির্বাচনে হেরে গেলে প্লাটফর্ম তৈরি করতে হবে, সেজন্য খালেদা জিয়া আজ এসব কথা বলছেন।

সাতক্ষীরা থেকে নির্বাচিত আ ফ ম রুহুল হক বলেন, স্বাস্থ্য ব্যবস্থার যথেষ্ট উন্নয়ন হয়েছে। তবে মেডিকেল কলেজে শিক্ষকের অভাব রয়েছে বলে মনে করি। এদিকে বিশেষ নজর দেয়া উচিত। সংরক্ষিত নারী আসনের এমপি সানজিদা খানম বলেন, উন্নয়নের মহাসড়কে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ। নারী উন্নয়নে এগিয়েছি অনেক। পদ্মা সেতু আজ আর স্বপ্ন নয়, বাস্তব। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অসীম নেতৃত্বে এটা বাস্তবায়ন করা সম্ভব হচ্ছে। আমার নির্বাচনী এলাকার মানুষের দাবি- পদ্মা সেতুর নাম শেখ হাসিনা সেতু রাখা হোক।

হবিগঞ্জ-১ থেকে নির্বাচিত জাতীয় পার্টির মো. আবদুল মুনিম চৌধুরী বলেন, বাজেটের সফলতা বলতে আমরা বুঝি, তা বাস্তবায়ন করা হচ্ছে কিনা। আর জনগণ বোঝে, কোন জিনিসের দাম কমলো আর কোন জিনিসের দাম বাড়ল। কিন্তু কোনো সময়ই বাজেট বাস্তবায়ন হয় না। সম্পূরক বাজেটের নামে সব সময় চলে লুটপাট। এবারও সে লুটপাট হবে। নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের ওপর শুল্ক আরোপ করা হয়েছে। এসব সাধারণ ও গরিব মানুষ ব্যবহার করে। ইমিটেশনের ওপর শুল্ক বাড়ানো হয়েছে। যারা স্বর্ণ ব্যবহার করতে পারেন না, তারা ইমিটেশন ব্যবহার করেন। অর্থমন্ত্রী সেটাও তাদের জন্য দুর্লভ করলেন। শেয়ারবাজার কেলেঙ্কারি ও ব্যাংক লুটপাট করে ধ্বংস করা হয়েছে। কিন্তু অর্থমন্ত্রী কিছুই করতে পারেননি। এত ভ্যাট-ট্যাক্স আর শুল্ক আরোপের পর এ বাজেট বাস্তবায়ন করা সম্ভব কিনা, আমার সন্দেহ রয়েছে।

পিরোজপুরের সরকারধলীয় এমপি একেএম আওয়াল বলেন, তৃণমূলের কথা বিবেচনা করে সবকিছুর সিদ্ধান্ত নেয়া উচিত। একজন লোক জীবনে আওয়ামী লীগ করেনি, হঠাৎ শুনি আওয়ামী লীগের নেতা হয়ে গিয়েছে। তারা আবার শেখ হাসিনাকে কটূক্তি করে। তিনি বলেন, বিএনপিকে অনুরোধ করব, শেখ হাসিনার কাছ থেকে শিক্ষা গ্রহণ করেন। দেশকে ভালোবাসুন, দেশের মানুষকে ভালোবাসুন।


ঢাকা, জুন ১৩(বিডিলাইভ২৪)// আর কে
 
        print


মোবাইল থেকে অ্যাপস ডাউনলোড করুন
android iphone windows




bdlive24.com © 2010-2014
Powered By: NRB Investment Ltd.