সর্বশেষ
সোমবার ১০ই বৈশাখ ১৪২৫ | ২৩ এপ্রিল ২০১৮

রাত পোহালে ক্রিকেটের সুপার সানডে

শনিবার, জুন ১৭, ২০১৭

1685328126_1497712421.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :
প্রস্তুত মঞ্চ। প্রস্তুত দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দল। অপেক্ষায় দেশ বিদেশের লক্ষ-কোটি ক্রিকেটপ্রেমী। দীর্ঘ দশ বছর পর আবারও বড় কোনা আসরের ফাইনালে পাক-ভারত মহারণ। একরাশ স্বপ্ন নিয়ে রোববার ওভালে হাজির হবেন দু’দেশের পাগল সমর্থকরা। হাসিমুখ নিয়ে প্রিয় দলের খেলা দেখতে আসা একপক্ষকে ফিরতে হবে মলিন বদন নিয়ে। এটাই যে ক্রিকেটের সৌন্দর্য।

কেউ চার-ছক্কার আনন্দে মাতোয়ারা হবে আবার কেউ মাথা নিচু করে মনের কোনে হতাশার বাসা বুনবে। ক্রিকেট বলে কথা। চ্যাম্পিয়নস ট্রফির শিরোপা ভাগাভাগির ম্যাচে ক্রিকেটের এমন সব রোমাঞ্চ দেখতে চান রথী-মহারথীরা।

ইতোমধ্যে ফাইনালের আবহ ছাড়িয়েছে নির্দিষ্ট গণ্ডি। ভারত, পাকিস্তানের সীমানা পেরিয়ে সেই ঢেউ আঁচড়ে পড়ছে ক্রিকেট বিশ্বের আনাচে-কানাচে। কথার যুদ্ধ, যুক্তির সনিপুন ব্যবহার কিংবা ভালো লাগার খাতিরে কেউ বলছেন জিতবে ভারত। কেউ আবার এগিয়ে রাখছেন পাকিস্তানকে। এও মানছেন, হতে পারে যে কোনো কিছু।

সাবেক পাক ক্রিকেটার শহীদ আফ্রিদি বলেই দিলেন সামনে থেকে মোকাবেলা করার কথা। ‘এটা অবশ্যই লড়াইয়ের বড় মঞ্চ। এখানে চাপ নেওয়া মোটেও ঠিক হবে না। সরফরাজদের প্রতি আমার উপদেশ, তারা যেন ভয়–ডরহীন ক্রিকেট খেলে। আমাদেরকে সামনে থেকেই মোকাবেলা করতে হবে। ভারত শক্ত দল। তবে আমার আশাবাদ পাকিস্তান মনোবল ঠিক রেখে খেললে ভালো কিছু করবে। অনেক দিন পর জমজমাট একটা ম্যাচ দেখার অপেক্ষাই রইলাম।’

ছাড় দেননি প্রাক্তন ভারতীয় তারকা অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলিও। বলেছেন ‘আমি ফেভারিট বাছতে পছন্দ করি না। তবে ইদানীং ভারতের বিপক্ষে পাকিস্তান নিজেদের ঠিকমতো প্রস্তুত করে মাঠে নামে না। তাই যতই লম্ফঝম্ফ করুক, কোহলির হাতেই শোভা পাবে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি। জিতবে ভারতই।’

কথা কাজে মেলাতে অপেক্ষা করতে হবে কাল অবধি। সাবেকরা যতই হুমকি-ধমকি ছাড়ুক। মাটিতে পা রেখেই কথা বলছেন দুই দলের প্রতিনিধি। মাঠে নামার আগে আজ সংবাদ সম্মেলনে বিরাট যা বলেছেন তার সারমর্ম, ‘আমরা পাকিস্তানকে নিয়ে বেশ সতর্ক। যে কোনো কিছু হতে পারে।’

পাকিস্তানের পক্ষে কথা বলেছেন কোচ মিকি আর্থার। আসলে ফাইনাল বলে কথা। একটা উত্তেজনা আছে। তবে সেটা মাঠ অবধি নেয়া যাবে না। ছেলেরা যদি তাদের স্বাভাবিক পারফর্মটা করতে পারে, তবে যে কাউকে হারানো সম্ভব।’

পিচ কন্ডিশন:

ওভালে উইকেট অবশ্যই ব্যাটিং সহায়ক। তবে নতুন বলে বাড়তি সুবিধা পাবে পেসাররা। আবহাওয়ার পূর্বাভাস বলছে, বৃষ্টি হওয়ার শঙ্কা নেই বললেই চলে। অবশ্য আকাশ খানিকটা মেঘলা থাকবে। যদি বড় কোনো অঘটন না হয় তবে সংগ্রহটা ৩০০ কিংবা ৩২০ এমন হতে পারে।

স্পটলাইট:

পাকিস্তান দলের হয়ে সবার নজরে থাকবেন হাসান আলী। বল হাতে দুর্দান্ত ফর্মে এই পাক পেসার। দলের প্রয়োজনে ব্যাট ধরেও ঝড় তুলতে পারেন অনায়াসে। চলমান আসরে ৪ ম্যাচে ১০টি উইকেট ঝুলিতে পুরেছেন হাসান। অপরদিকে ভারতীয় দলে ব্যাট হাতে আবারও আলো ছড়াতে পারেন শিখর ধাওয়ান। চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে এখন পর্যন্ত সেরা রান সংগ্রাহক ধাওয়ান। ৪ ম্যাচে ৩১৭ রান নিয়ে সেরার আসন তার দখলে।

ভারত একাদশ (সম্ভাব্য):

রোহিত শর্মা, শিখর ধাওয়ান, বিরাট কোহলি (অধিনায়ক), যুবরাজ সিং, মহেন্দ্র সিং ধোনি (উইকেটরক্ষক), কেদার যাদব, হার্দিক পান্ডিয়া, রবীন্দ্র জাদেজা, রবীচন্দ্রন অশ্বিন/উমেশ যাদব, ভুবনেশ্বর কুমার, জ্যাসপ্রীত বুমরাহ।

পাকিস্তান একাদশ (সম্ভাব্য):

আজহার আলী, ফখর জামান, বাবর আজম, মোহাম্মদ হাফিজ, শোয়েব মালিক, সরফরাজ আহমেদ (অধিনায়ক, উইকেটরক্ষক), ইমাদ ওয়াসিম, মোহাম্মদ আমির, শাদব খান, হাসান আলী, জুনায়েদ খান।

চ্যাম্পিয়নস ট্রফির ফাইনাল

মুখোমুখি: ভারত-পাকিস্তান

সময়: বিকাল ৩.৩০টা

সরাসরি: বিটিভি, জিটিভি ও মাছরাঙ্গা।

ঢাকা, শনিবার, জুন ১৭, ২০১৭ (বিডিলাইভ২৪) // ম. উ এই লেখাটি বার পড়া হয়েছে