bdlive24

নারীর নান্দনিক সাজে গয়না

সোমবার জুন ১৯, ২০১৭, ০৯:৩২ এএম.


নারীর নান্দনিক সাজে গয়না

বিডিলাইভ ডেস্ক: সাজে গয়নার প্রাধান্য ছিল, আছে, থাকবে। যুগের সঙ্গে মিলিয়ে শুধু পরিবর্তন হচ্ছে এর রং, নকশা। ঈদের সময় পোশাকের সঙ্গে মিলিয়ে গয়না পরার আগ্রহ বেড়ে যায় শতগুণ।

এবারের গয়নায় বেশ কয়েক ধরনের নকশা দেখা যাচ্ছে। হালকা ও ভারি দুই ধরনের গয়নার চাহিদা সমান। গরমের কারণে এবার হালকা গয়নার দিকে ঝুঁকছেন তারুণীরা। তবে অনেকে ভারি গয়নাও কিনছেন।

বিক্রেতারা জানান, তামা, পাথর ছাড়াও হাতের কাজ করা মালা, কাপড়ের মালা, গলাখোলা মালা এখন বেশ আকর্ষণীয়।

ফ্যাশন হাউজ আড়ং এবার ঈদে মোগল আমলের প্যাটার্ন বা নকশার গয়না নিয়ে হাজির হয়েছে। ঈদের থিম হিসেবে বেছে নেয়ায় শুধু গয়না নয়, এবার জামা-কাপড়েও প্রতিষ্ঠানটি মোগল আমলের ডিজাইনকে প্রাধান্য দিয়েছে। সোনা, রুপার সঙ্গে রুবি, পান্নাসহ বিভিন্ন পাথরের ঝিকিমিকি, মিনার কারুকাজ, গলার মালায় কয়েক স্তরের ঝালর, হাতের রতনচুড়সহ বিভিন্ন গয়না ক্রেতাদের নজর কেড়েছে বলে জানালেন আড়ংয়ের একজন বিক্রয়কর্মী।

চাঁদনীচক এবং গাউসিয়া এলাকার গয়নার দোকানগুলোতে দেখা যায়, সব জায়গায় মোগল আমলের নকশা না থাকলেও ভারি গয়নার ফ্যাশন চলছে। অ্যান্টিক কালারের গয়নাও বিক্রেতারা বেশ কিনছেন। এছাড়া বিভিন্ন ধরনের ইমিটিশনের গয়নার চাহিদাও চোখে পড়ার মতো। ছোট বড় গলার সেট এবং নানা ধরনের ঝুমকা পাওয়া যাচ্ছে বিভিন্ন দামে।

এছাড়া, কুর্তা বা কামিজে এথনিক লুক আনতে অনেকেই টারসেলে তৈরি গয়না পরছেন। সুতা, বিডস, মেটাল এসব দিয়েই এই টারসেল বানানো হচ্ছে।

এবার ঈদে গরম থাকছে বেশি, সেটা মাথায় রেখেই হালকা গয়না পছন্দ করছেন। বরাবরই মাদলে গয়নার কালেকশন থাকে একটু ভিন্ন। অ্যান্টিক কালারের মধ্যে কিছু ভারি এবং হালকা ডিজাইনের চোকার ও ধাতব গয়না দেখা যায়।

এছাড়া আংটি, ব্রেসলেট, শাড়ির সঙ্গে হাতের কাজ করা তিন চারটি লহরের মালা, কাপড়ের মালা, গলাখোলা মালা এখন বেশ সুন্দর বলে জানান বিক্রেতারা।


ঢাকা, জুন ১৯(বিডিলাইভ২৪)// এস আর
 
        print



মোবাইল থেকে অ্যাপস ডাউনলোড করুন
android iphone windows




bdlive24.com © 2010-2014
Powered By: NRB Investment Ltd.