bdlive24

শরীয়তপুরে টিসিবি’র কার্যক্রম বন্ধ

সোমবার জুন ১৯, ২০১৭, ০৯:৩৬ পিএম.


শরীয়তপুরে টিসিবি’র কার্যক্রম বন্ধ

শরীয়তপুর প্রতিনিধি: পবিত্র রমজান উপলক্ষে মে মাসের ১৫ তারিখ থেকে খোলাবাজারে বিক্রি করার জন্য সরকার বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) মাধ্যমে সাশ্রয়ী মূল্যে সারা দেশে পণ্যসামগ্রী সরবরাহ করছে। অথচ শরীয়তপুরের কোথায়ও এ কার্যক্রম না থাকায় জেলার স্বল্প আয়ের মানুষ বেশি দামে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য ক্রয় করতে বাধ্য হচ্ছে।

জানা যায়, জেলা শহরের মধ্যে প্রতিদিন দুটি ট্রাকে করে চিনি, সয়াবিন তেল, মসুর ডাল ও ছোলা বিক্রি করার কথা। শরীয়তপুর জেলায় টিসিবি’র নয়জন পরিবেশক রয়েছেন। লোকসান হওয়ার ভয়ে কোনো পরিবেশক টিসিবি থেকে পণ্য উত্তোলন করে সরবরাহ করছেন না।

শরীয়তপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয় সূত্রে জানায়, জেলায় টিসিবি’র নয়জন পরিবেশক রয়েছেন। যাদের মধ্যে আটজন পরিবেশকের লাইসেন্সের মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়ে গেছে। জেলা সদরে টিসিবির পণ্য বিক্রি করার জন্য নিয়োগ দেওয়া হয়েছিল মদিনা ট্রেডার্স, হিমালয় ট্রেড ইন্টারন্যাশনাল, রাহাত এন্টারপ্রাইজ ও খান ট্রেডার্সকে। এদের মধ্যে একমাত্র রাহাত এন্টারপ্রাইজের লাইসেন্সের মেয়াদ রয়েছে।

টিসিবির পরিবেশকেরা জানান, টিসিবির সরবরাহ করা পণ্য বরিশাল কার্যালয় থেকে শরীয়তপুরে আনতে অনেক খরচ। বরিশাল থেকে পণ্য আনার জন্য ট্রাকভাড়া ১০/১২ হাজার টাকা, পণ্য ওঠানো-নামানোর খরচ হয় প্রতি মেট্রিক টনে ৫০০ টাকা। সব মিলিয়ে প্রতি ট্রাকে ডিলারের লোকসান হবে ৫ হাজার টাকা থেকে সাড়ে ৬ হাজার টাকা।

পরিবেশক রাহাত এন্টারপ্রাইজের মালিক জাকির হোসেন বলেন, ‘ছয় বছর যাবৎ টিসিবির লাইসেন্স করেছি। এ সময়ে আট লাখ টাকা লোকসান হয়েছে। এখন আর পারছি না, তাই এক বছর যাবৎ টিসিবি থেকে কোনো পণ্য উত্তোলন করছি না।’

মদিনা ট্রেডার্সের মালিক মহসিন উদ্দিন বলেন, ‘টিসিবি এক কেজি পণ্যের বিপরীতে সাড়ে চার টাকা দিচ্ছে। আমাদের পণ্যসামগ্রী এনে বিক্রি করতে খরচ হচ্ছে সাড়ে ছয় টাকা থেকে সাত টাকা। আমরা কেন লোকসান দেব?’

শরীয়তপুর জেলা প্রশাসক মোঃ মাহমুদুল হোসাইন খান বলেন, ‘শরীয়তপুরে টিসিবির কার্যক্রম কোথাও চালু হয়নি। অনেক দূর থেকে টিসিবির মালামাল আনতে হয়। তাই ডিলাররা লোকসানের ভয়ে টিসিবির মাল উত্তোলন করেনি। জেলায় টিসিবির নয়জন ডিলার রয়েছে। এর মধ্যে আটজন ডিলারের লাইন্সেস এর মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়ে গেছে। নতুন ডিলার নিয়োগে টিসিবি উদাসীন।

তাই রমজান মাসে শরীয়তপুর জেলায় কোথাও টিসিবির ডিলারের মাধ্যমে স্বল্প আয়ের মানুষের মধ্যে সাশ্রয়ী মূল্যে পণ্যসামগ্রী সরবরাহ করা যায়নি।’


ঢাকা, জুন ১৯(বিডিলাইভ২৪)// আর এ
 
        print



মোবাইল থেকে অ্যাপস ডাউনলোড করুন
android iphone windows




bdlive24.com © 2010-2014
Powered By: NRB Investment Ltd.