bdlive24

শত রানি নিয়ে সংসার করছেন রাজা আবুম্বি

বৃহস্পতিবার আগস্ট ০৩, ২০১৭, ১২:৫৩ পিএম.


শত রানি নিয়ে সংসার করছেন রাজা আবুম্বি

বিডিলাইভ রিপোর্ট: ক্যামেরুনের বাফুটের রাজা দ্বিতীয় আবুম্বির রাজ্য চালনায় কতটুকু সফল সেটি নিয়ে আলোচনা হোক আর না হোক একটি জায়গায় অবশ্য তিনি সবাইকে ছাড়িয়ে গেছেন। রাজা দ্বিতীয় আবুম্বি সংসার করছেন একসাথে শত রানি নিয়ে। রাজ্য পরিচালনায় তার দক্ষতা, জনপ্রিয়তা সব কিছু ছাপিয়ে বারবার আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের শিরোনাম হয়েছেন রাজা দ্বিতীয় আবুম্বি।

তবে মজার বিষয় হলো, এই একশ রানিকেই বিয়ে করেননি আবুম্বি। সেখানকার প্রথানুযায়ী, রাজা মারা গেলে তার উত্তরসূরি এই সব রানির দায়িত্ব গ্রহণ করেন। এর বাইরে বিয়েও করতে পারেন তিনি।
 
আমুম্বির তৃতীয় স্ত্রী রানি কনস্ট্যান্স বলেন, সব সফল মানুষের পেছনেই একজন সফল ও ধৈর্যশীল স্ত্রী থাকেন। আমাদের ঐতিহ্যে আছে, যখন তুমি রাজা হবে, রাজার সবচেয়ে বয়সী রানি ছোটদের দেখাশোনা করেন। এমনকি রাজাকেও শিখিয়ে-পড়িয়ে নেন। কারণ রাজা আগে রাজা ছিলেন না, ছিলেন রাজপুত্র। তাকে রাজকার্য শেখানোর জন্য বড় স্ত্রীর ভূমিকা প্রধান। রানিদের অবদানের কথা আবুুম্বি নিজেও অবলীলায় স্বীকার করে নিয়েছেন।

রানিদের বিষয়ে বলতে গিয়ে তিনি বলেন, রানিরা সবকিছু বোঝেন এবং আমাকে রাজকার্যে পরামর্শ দিয়ে থাকেন।
বাফুটের রানিদের প্রায় সবাই শিক্ষিত। ইংরেজি ও ফরাসি ভাষায় রয়েছে তাদের ভালো দখল। একজন রানি বলেছেন, রাজ্য চালানোর জন্য ভালোজ্ঞান না থাকলে রাজাকে সাহায্য করার ক্ষমতা রানিরা পাবে কোথায়?

বাফুটের অধিবাসী প্রিন্স নিকসনের ভাষ্য, রাজা ও রাজ্য পরিচালনায় রানিদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে। রাজাকে একজন পূর্ণাঙ্গ রাজার ভূমিকায় অধিষ্ঠিত করতে রানিরা রাজাকে অনেক সংস্কার শেখান। রাজ্য পরিচালনার ব্যাপারেও সব সময় রাজার পাশে থাকেন রানিরা।

বহুবিবাহের বিষয়টি ক্যামেরুনে স্বীকৃত। পরিসংখ্যান বলছে, আফ্রিকা মহাদেশে বহুগামিতা একটি সাধারণ ঘটনা। ক্যামেরুনেও এটি স্বীকৃত। তবে পশ্চিমা মূল্যবোধের কারণে বহুবিবাহের বিষয়টি ধীরে ধীরে চ্যালেঞ্জের মুখে পড়ছে।

আফ্রিকানদের এই মূল্যবোধের বিষয়ে পশ্চিমা বিশ্বের নেতিবাচক মূল্যায়ন করতে গিয়ে রাজা বলেন, বাবার রেখে যাওয়া স্ত্রীদেরও স্ত্রী হিসেবে গ্রহণ করার এই রীতি নৈতিক বাধ্যবাধকতা মাত্র। সব দিক মানিয়ে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে হয় আমাদের। একই সাথে ঐতিহ্য ধরে রেখে আধুনিকতা আর উন্নয়নের সুফল পৌঁছে দিতে হয় জনসাধারণের মাঝে।

রাজার মতে, সংস্কৃতিকে লালন করা প্রত্যেক মানুষের বড় দায়িত্ব। সংস্কৃতির পরিপালন ছাড়া কেউ সত্যিকারের মানুষ হিসেবে আত্মপ্রকাশ করতে পারে না। আর এই বিষয়টি নিশ্চিত করা আমার অন্যতম দায়িত্ব বলেন তিনি।


ঢাকা, আগস্ট ০৩(বিডিলাইভ২৪)// পি ডি
 
        print

এই বিভাগের আরও কিছু খবর







মোবাইল থেকে অ্যাপস ডাউনলোড করুন
android iphone windows




bdlive24.com © 2010-2014
Powered By: NRB Investment Ltd.