সর্বশেষ
বৃহঃস্পতিবার ৪ঠা শ্রাবণ ১৪২৫ | ১৯ জুলাই ২০১৮

বনশ্রীতে গৃহকর্মীর মৃত্যুতে হত্যা মামলা: গৃহকর্ত্রী গ্রেপ্তার

শনিবার, আগস্ট ৫, ২০১৭

1521442540_1501906432.jpg
বিডিলাইভ রিপোর্ট :
রাজধানীর বনশ্রীতে গৃহকর্মী লাইলী বেগমের রহস্যজনক মৃত্যু, হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনায় দুটি মামলা হয়েছে। গ্রেপ্তার গৃহকর্তা মইনুদ্দিন ও বাড়ির তত্ত্বাবধায়ক টিপুকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

গতকাল শুক্রবার রাতে লাইলীর স্বামী নজরুল ইসলামের বড় ভাই (ভাশুর) শহীদুল ইসলাম বাদী হয়ে গৃহকর্ত্রী শাহনাজসহ তিন জনকে আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করেন।

মামলার পর গৃহকর্ত্রী শাহনাজকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। আজ শনিবার ভোরে বনশ্রী জি-ব্লকের ৪ নম্বর রোডের নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

পুলিশের খিলগাঁও থানার ইন্সপেক্টর-অপারেশন মোস্তাফিজুর রহমান আজ সকালে বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য কিছুক্ষণ আগে গৃহকর্ত্রীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

এ ঘটনায় এ পর্যন্ত মোট ৩ জনকে আটক করা হয়েছে। বাকি দুইজন হচ্ছেন ওই বাড়ির মালিক মুন্সী মইনউদ্দিন ও বাড়ির দারোয়ান তোফাজ্জল।

এর আগে, গতকাল শুক্রবার দুপুরে মইনউদ্দিনের বাসায় কাজ করতে গেলে তাদের একটি ঘর থেকে লাইলীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এই মৃত্যুকে ‘হত্যা’ দাবি করে বনশ্রীর বাসিন্দারা জি-ব্লকের ওই বাড়িটিতে হামলা চালায়, ইটপাটকেল ছোড়ে এবং একটি গাড়িতে আগুন দেয়।

লাইলীর গলায় দাগ থাকলেও শরীরের অন্য কোথাও কোন আঘাতের চিহ্ন পায়নি ঢামেক কর্তৃপক্ষ।

এ দিকে লাইলীর ঘটনাকে কেন্দ্র করে বনশ্রীতে সংঘর্ষ, গাড়ি ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে পৃথক একটি মামলা দায়ের করেছে। মামলার এজাহারে ৩০০/৪০০ জন অজ্ঞাত আসামি ‘সংঘর্ষ, গাড়ি ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের’ ঘটনায় জড়িত বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

ঢাকা, শনিবার, আগস্ট ৫, ২০১৭ (বিডিলাইভ২৪) // এস আর এই লেখাটি বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন