সর্বশেষ
শুক্রবার ৭ই বৈশাখ ১৪২৫ | ২০ এপ্রিল ২০১৮

প্রকৌশল পণ্যের রপ্তানি আয় লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ১৭.৭৭ শতাংশ বেশি

সোমবার, আগস্ট ৭, ২০১৭

1551788639_1502089795.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :
২০১৬-১৭ অর্থবছরে প্রকৌশল খাতের পণ্য রপ্তানিতে আয় হয়েছে ৬৮ কোটি ৮৮ লাখ ৪০ হাজার মার্কিন ডলার বা প্রায় ৫ হাজার ৬২৫ কোটি টাকা। যা গত ২০১৫-১৬ অর্থবছরে এই খাতে রপ্তানি আয়ের তুলনায় ৩৫.০৫ শতাংশ বেশি। একইসঙ্গে সমাপ্ত অর্থবছরে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে প্রকৌশল খাতের পণ্য রপ্তানি ১৭.৭৭ শতাংশ বেশি হয়েছে।

বাংলাদেশ রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) জুলাই মাসে প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে এই তথ্য জানা গেছে। এতে আরও জানানো হয়েছে, গত ২০১৫-১৬ অর্থবছরে প্রকৌশল পণ্য রপ্তানিতে আয় হয়েছিল ৫১ কোটি ৮০ হাজার মার্কিন ডলার। ২০১৬-১৭ অর্থবছরে প্রকৌশল পণ্য রপ্তানি লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ৫৮ কোটি ৪৯ লাখ মার্কিন ডলার।

প্রকৌশল পণ্যের মধ্যে আয়রন স্টিল রপ্তানিতে সমাপ্ত অর্থবছরে আয় হয়েছে ৫ কোটি ৮৮ লাখ ৩০ হাজার মার্কিন ডলার; যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ২০.৩১ শতাংশ বেশি। একইসঙ্গে আগের অর্থবছরের তুলনায় এই খাতের আয় ২১.১৫ শতাংশ বেড়েছে। ২০১৫-১৬ অর্থবছরের আয়রন স্টিল রপ্তানিতে আয় হয়েছিল ৪ কোটি ৮৫ লাখ ৬০ হাজার মার্কিন ডলার।

সদ্য সমাপ্ত অর্থবছরে তামার তার রপ্তানিতে আয় হয়েছে ৩ কোটি ৬০ লাখ ৯০ হাজার মার্কিন ডলার; যা এই সময়ের লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৪৪.৩৬  শতাংশ বেশি। একইসঙ্গে এর আগের অর্থবছরের তুলনায় এই খাতের রপ্তানি আয় ৪৭.৪৯ শতাংশ বেড়েছে। ২০১৫-১৬ অর্থবছরে তামার তার রপ্তানিতে আয় হয়েছিল ২ কোটি ৪৪ লাখ ৭০ হাজার মার্কিন ডলার।

২০১৬-১৭ অর্থবছরে স্টেইনলেস স্টিল তার রপ্তানি লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিল ১ কোটি ১০ লাখ মার্কিন ডলার। এর বিপরীতে আয় হয়েছে ৭৮ লাখ ২০ হাজার মার্কিন ডলার; যা এই সময়ের লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ২৮.৯১ শতাংশ এবং আগের অর্থবছরের তুলনায় ১৫.১৮ শতাংশ কম। ২০১৫-১৬ অর্থবছরে স্টেইনলেস স্টিল তার রপ্তানিতে আয় হয়েছিল ৯২ লাখ ২০ হাজার মার্কিন ডলার।

প্রকৌশল সরঞ্জাম রপ্তানিতে ২০১৬-১৭ অর্থবছরে আয় হয়েছে ২৭ কোটি ১০ লাখ ৯০ হাজার মার্কিন ডলার; যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ২০.৪৮ শতাংশ বেশি। একইসঙ্গে এর আগের অর্থবছরের তুলনায় এই খাতের আয় ৫৫.০৯ শতাংশ বেড়েছে। ২০১৫-১৭ অর্থবছরে বৈদ্যুতিক সরঞ্জাম রপ্তানিতে আয় হয়েছিল ৬ কোটি ৫০ লাখ মার্কিন ডলার।

২০১৬-১৭ অর্থবছরে বাইসাইকেল রপ্তানিতে আয় হয়েছে ৮ কোটি ২৪ লাখ ৬০ হাজার মার্কিন ডলার; যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ১৭.৫৪ শতাংশ এবং আগের অর্থবছরের তুলনায় ১৬.৮৩ শতাংশ কম। ২০১৫-১৬ অর্থবছরে বাইসাইকেল রপ্তানিতে আয় হয়েছিল ৯ কোটি ৯১ লাখ ৫০ হাজার মার্কিন ডলার।

ঢাকা, সোমবার, আগস্ট ৭, ২০১৭ (বিডিলাইভ২৪) // জে এইচ এই লেখাটি বার পড়া হয়েছে