সর্বশেষ
সোমবার ১লা শ্রাবণ ১৪২৫ | ১৬ জুলাই ২০১৮

মধ্যপ্রাচ্যে বিক্রির উদ্দেশ্যে ব্রিটিশ মডেলকে অপহরণ

মঙ্গলবার, আগস্ট ৮, ২০১৭

1393410818_1502191606.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :
ব্রিটেনের মডেল ক্লো অ্যালিংয়ের আইনজীবী জানিয়েছেন, মধ্যপ্রাচ্যে যৌনদাসী হিসেবে বিক্রির জন্য হয়তো ইতালির মিলান শহর থেকে অ্যালিংকে অপহরণ করা হয়েছিল।

আইনজীবী ফ্রান্সেসকো পেসকি জানিয়েছেন, ২০ বছর বয়সী ক্লো অ্যালিং বন্দি থাকা অবস্থায় কী আচরণ করেছেন, কী ভেবেছেন।

দুদিন আগেই ইতালির পুলিশ ব্রিটেনের এই মডেলকে উদ্ধার করে জানায় যে অপরাধীরা তাকে অনলাইনে নিলামে বিক্রির উদ্দেশ্যে অপহরণ করেছিল।

ওই মডেল একটি ফটো শুটে অংশ নেয়ার জন্য মিলানে গিয়েছিলেন। উদ্ধারের পর মিস অ্যালিং বলেছেন তিনি মৃত্যুর দুয়ার থেকে ফিরে এসেছেন।

‘ব্ল্যাক ডেথ’ নামে একটি গ্রুপ ব্রিটিশ এই মডেলকে অপহরণ করে ছয়দিন আটকে রাখে।

মিলানের উদ্দেশ্যে বাড়ি ছাড়ার ২৬ দিন পর রোববার নিজ বাড়িতে ফিরেছেন ক্লো অ্যালিং। অ্যালিংকে উদ্ধারের পর ইতালির পুলিশ জানিয়েছিল, মিলানে নামার পরই দু'ব্যক্তি ওই মহিলাকে আক্রমণ করে এবং নেশার ইনজেকশন দিয়ে তাকে অজ্ঞান করে। এরপর একটি ব্যাগের ভেতর ঢুকিয়ে তাকে গাড়ির বুটে তোলা হয় এবং টুরিন শহরের কাছে এক জায়গায় নিয়ে যাওয়া হয়।

পুলিশের তদন্ত বিভাগ বলছে, অপহরণকারীরা বেশ কয়েকটি ওয়েবসাইটের মাধ্যমে নারীদের অনলাইনে নিলামে তোলে। সাইটগুলিতে প্রতিটি নারীর ছবির সাথে তাদের বর্ণনা এবং প্রাথমিক মূল্য দেয়া ছিল। তবে ছবিতে দেয়া নারীদের সবাইকে একই ব্যক্তিরা অপহরণ করেছে কি না, তা এখনও জানা সম্ভব হয়নি বলে মিলান পুলিশ বলছে।

কর্মকর্তারা জানান, জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেপ্তার হওয়া ব্যক্তিরা জানিয়েছে যে তারা ‘ব্ল্যাক ডেথ গ্রুপ’ নামে একটি অপরাধী চক্রের সদস্য যাদের মূল ব্যবসা হচ্ছে নারী পাচার। আইনজীবী পেসকি জানাচ্ছেন, তার মক্কলেক মধ্যপ্রাচ্যে যৌনকর্মের জন্য কারো কাছে বিক্রির পরিকল্পনা করছিল অপহরণকারীরা। অ্যালিং অপহরণকারীদের সঙ্গে কেনাকাটা করতে গিয়েছিলেন কারণ তাকে মৃত্যুর হুমকি দেয়া হয়েছিল। তাকে বলা হয়েছিল আশেপাশে অনেকে তার গতিবিধি নজরে রাখছে। যদি পালানোর চেষ্টা করে বা কোনো চালাকি করে তাহলে তাকে মেরে ফেলার জন্য প্রস্তুত তারা। তাই তিনি ভাবলেন অপহরণকারীদের সঙ্গে যাওয়াই হবে সবচেয়ে ভালো কাজ। অপহরণকারী এক ব্যক্তি অ্যালিংকে বলেছিল যে সে তাকে মুক্ত করতে চায় তা যেভাবেই হোক।

মিস অ্যালিং ওই ঘটনাকে জীবনের ‘ভয়াবহ অভিজ্ঞতা’ হিসেবে বর্ণনা করে বলেছেন, প্রত্যেক মুহূর্তে তিনি তার জীবন নিয়ে শঙ্কার মধ্যে ছিলেন। ‘আমি ইতালি ও যুক্তরাজ্যের কর্তৃপক্ষের প্রতি আন্তরিকভাবে কৃতজ্ঞ, তাদের কারণেই আমি নিরাপদে বেঁচে ফিরেছি’ বলেছেন ব্রিটিশ মডেল ক্লো অ্যালিং।

এই ঘটনাটি নিয়ে ইতালি, পোল্যান্ড এবং যুক্তরাজ্যে যৌথভাবে তদন্ত চলছে।

সূত্র: বিবিসি।

ঢাকা, মঙ্গলবার, আগস্ট ৮, ২০১৭ (বিডিলাইভ২৪) // এস এইচ এই লেখাটি বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন