সর্বশেষ
শনিবার ৯ই আষাঢ় ১৪২৫ | ২৩ জুন ২০১৮

যমুনা নদীর পানি বিপদসীমার উপরে

রবিবার, আগস্ট ১৩, ২০১৭

1597083104_1502617487.jpg
সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি :
সিরাজগঞ্জে যমুনা নদীতে পানি পয়েন্টে বিপদসীমার ৪৪ সেন্টিমিটার উপরে প্রবাহিত হচ্ছে। উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে যমুনা নদীতে পানি বেড়েই চলেছে। এতে জেলার অভ্যন্তরীণ করতোয়া, গুমানী, হুরাসাগর, ফুলজোড় নদীর পানি বৃদ্ধি পাচ্ছে। নতুন করে আবারও বিভিন্ন গ্রাম প্লাবিত হবার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে।

সিরাজগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ড কার্যালয়ের ডাটা এ্যান্টি অপারেটর আবুল কালাম আজাদ জানান, শনিবার সকাল থেকে রোববার সকাল পর্যন্ত ২৪ ঘন্টায় (সিরাজগঞ্জ শহর রক্ষা হার্ড পয়েন্ট এলাকায়) যমুনা নদীর পানি ৩৪ সেন্টিমিটার বৃদ্ধি পেয়ে বিপদসীমার ৪৪ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার কাওয়াকোলা ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুল আলীম, মেছড়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল মজিদ জানান, যমুনার পানি বৃদ্ধি পেয়ে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হতে শুরু করেছে। পানি প্রতিদিন যেভাবে বাড়ছে তাতে আবার বন্যার আশঙ্কা করা হচ্ছে। এতে করে বিপাকে পড়েছেন গরুর খামারীরা। যমুনা নদীর চরে প্রায় প্রতিটি বাড়িতে গরুর খামার রয়েছে। চরের ঘাস খর খেয়ে গরুগুলো বেঁচে থাকে। চর ডুবে যাওয়ায় খামারীরা বিপাকে পড়েছেন।

সিরাজগঞ্জ জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা আব্দুর রহিম জানান, বন্যা মোকাবেলার সকল ধরনের প্রস্তুতি রয়েছে জেলা প্রশাসক ও জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসনের। পর্যাপ্ত ত্রাণ রয়েছে। এতে বন্যা কবলিত মানুষদের হতাশ হওয়ার কিছু নাই।

সিরাজগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী সৈয়দ হাসান ইমাম জানান, ভারতের আসামে বন্যা হওয়ার কারণে যমুনার পানি আরো ৪/৫ দিন বাড়বে। এতে দ্বিতীয় দফায় সিরাজগঞ্জে আবারো বন্যার আশঙ্কা রয়েছে। এ জন্য বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধকে ঝুঁকিমুক্ত রাখতে এবং যেকোনো পরিস্থিতির মোকাবিলার জন্য পানি উন্নয়ন বোর্ড প্রস্তুত রয়েছে।

ঢাকা, রবিবার, আগস্ট ১৩, ২০১৭ (বিডিলাইভ২৪) // আর এ এই লেখাটি বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন