সর্বশেষ
সোমবার ১৩ই ফাল্গুন ১৪২৪ | ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

বিমল করের ১৪তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ

শনিবার ২৬শে আগস্ট ২০১৭

792647346_1503729666.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :
আজ ২৬ আগস্ট, বিমল করের ১৪তম মৃত্যুবার্ষিকী। বিমল কর একজন ভারতীয় বাঙালি লেখক। ২০০৩ সালের এ দিনে ৮২ বছর বয়সে বিধান নগরের বাসভবনে মারা যান তিনি।

১৯২১ সালে ১৯ সেপ্টেম্বর উত্তর ২৪ পরগনার টাকিতে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। তার পিতার নাম জ্যোতিষচন্দ্র কর এবং মাতা নিশিবালা কর।

বাংলা ছোট গল্পে বিমল কর একটি সময়, একটি যুগ। শুধু তার গল্পের আধুনিকতাই নয়, তিনি আজীবন বাংলা সাহিত্যের তরুণ লেখকদের সঙ্গ দিয়েছেন, তাদের নিয়ে গল্পের নতুন নতুন রীতির কথা ভেবেছেন। শেষজীবন অবধি বিমল কর তার সন্তানপ্রতিম তরুণ লেখকদের নিয়ে ছোটগল্পের পত্রিকা গল্পপত্র সম্পাদনা করে গেছেন।  

১৯৪৪ সালে তার রচিত প্রথম ছোটগল্প 'অম্বিকানাথের মৃত্যু' প্রবর্তক পত্রিকায় প্রকাশিত হয়। ১৯৪৬ সালে তিনি মণিলাল গঙ্গোপাধ্যায় সম্পাদিত পরাগ পত্রিকায় সহ-সম্পাদকের কাজ পান। সহ-সম্পাদক হিসাবে তিনি পশ্চিমবঙ্গ ও সত্যযুগ পত্রিকায় কাজ করেন।

১৯৫৪ সালে তার রচিত প্রথম ছোটগল্প সংকলন 'বরফ সাহেবের মেয়ে' প্রকাশিত হয়। সেই বছরেই দেশ পত্রিকার বিভাগীয় প্রধান হিসাবে যোগ দেন।

ছোটদের জন্য তার রচিত একটি চরিত্র অবসরপ্রাপ্ত ম্যাজিসিয়ান কিঙ্কর কিশোর রায় বা কিকিরা। কিকিরার উপন্যাস পূজাবার্ষিকী আনন্দমেলায় প্রকাশিত হত।

তার রচিত বেশ কয়েকটি কাহিনীতে চলচ্চিত্র নির্মিত হয়েছে। যেমন বসন্ত বিলাপ, বালিকা বধূ, (যেটি হিন্দিতেও নির্মিত হয়েছিল) যদুবংশ, ছুটি (এটি তৈরি হয়েছিল তার খড়কুটো উপন্যাসের উপর ভিত্তি করে)।

বিমল কর 'অসময়' উপন্যাসের জন্য ১৯৭৫ সালে সাহিত্য একাডেমি পুরস্কার পেয়েছিলেন। এছাড়া কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের শরৎচন্দ্র পুরস্কার, দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের নরসিংহ দাস পুরস্কার পান। তিনি দুবার আনন্দ পুরস্কার লাভ করেছিলেন।

ঢাকা, শনিবার ২৬শে আগস্ট ২০১৭ (বিডিলাইভ২৪) // এস আর এই লেখাটি 18 বার পড়া হয়েছে