সর্বশেষ
বুধবার ৩রা মাঘ ১৪২৪ | ১৭ জানুয়ারি ২০১৮

গর্ভবতী স্ত্রীর পেটে লাথি, ক্রিকেটার মারুফের বিরুদ্ধে মামলা

মঙ্গলবার ২৯শে আগস্ট ২০১৭

188350499_1504013512.jpg
চট্টগ্রাম ব্যুরো :
স্ত্রীকে নির্যাতন করে গর্ভের সন্তানের মৃত্যু ঘটানোর অভিযোগে ক্রিকেটার মো. মেহেদী হাসান মারুফের (৩০) বিরুদ্ধে চট্টগ্রামের আদালতে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

রোববার মারুফের স্ত্রী তামান্না বিনতে আজাদ (৩০) বাদী হয়ে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আবু সালেম মো. নোমানের আদালতে মামলাটি দায়ের করেন।

তামান্না রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের সরঞ্জাম বিভাগের কর্মকর্তা। মেহেদী হাসান বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) ঢাকা ডাইনামাইটসের হয়ে ও প্রথম শ্রেণির লিগে খেলে থাকেন।

মামলার বাদী পক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী মামলা ও আদেশের বিষয় নিশ্চিত করে বলেন, ২০০৯ সালের ২৯ নভেম্বর ক্রিকেটার মারুফের সঙ্গে তামান্নার বিয়ে হয়। মারুফের সঙ্গে যৌথ পরিবারে সংসার করতে গিয়ে পারিবারিক বিরোধ সৃষ্টি হলে মারুফ ও তামান্না আলাদা বাসায় সংসার শুরু করেন। মামলায় অভিযোগ করা হয়, মারুফ অন্য নারীতে আসক্ত হয়ে পড়লে এ নিয়ে তামান্নার সঙ্গে বিরোধ তীব্র হয়। এর মধ্যে তামান্না অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। চলতি বছরের ১৯ ফেব্রুয়ারি ঝগড়ার এক পর্যায়ে মারুফ তামান্নার পেটে লাথি মারলে তাকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসকরা তামান্নার গর্ভের সন্তান মারা গেছে বলে জানালে তার গর্ভপাত ঘটানো হয়।

এ ঘটনার পরপরই তামান্না মারুফের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের চেষ্টা করলে মারুফের পরিবারের অনুরোধে মামলা করা থেকে বিরত থাকে। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে মারুফ তামান্নার সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ করে দিয়ে স্ত্রী মর্যাদা দিতে অস্বীকার করায় মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে বাদীর আইনজীবী জানিয়েছেন।

বাদীর আইনজীবী অ্যাডভোকেট ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী আরো জানান, দণ্ডবিধির ৩১৩ ধারায় দায়ের করা মামলা গ্রহণ করে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। পাশাপাশি  হাসপাতাল থেকে গর্ভপাতের প্রমাণ সংগ্রহ করে তা দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।



ঢাকা, মঙ্গলবার ২৯শে আগস্ট ২০১৭ (বিডিলাইভ২৪) // পি ডি এই লেখাটি 6 বার পড়া হয়েছে