সর্বশেষ
শনিবার ৬ই শ্রাবণ ১৪২৫ | ২১ জুলাই ২০১৮

মুক্তিযোদ্ধা হত্যায় এমপি আমানুরসহ ১৪ জনের বিচার শুরু

বুধবার, সেপ্টেম্বর ৬, ২০১৭

203477045_1504690790.jpg
বিডিলাইভ রিপোর্ট :
টাঙ্গাইলে মুক্তিযোদ্ধা ফারুক আহমেদ হত্যা মামলায় আওয়ামী লীগের সাংসদ আমানুর রহমান খান রানা, তার তিন ভাইসহ ১৪ আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেছেন আদালত।

আজ বুধবার টাঙ্গাইলের ১নং অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মো. আবুল মনসুর মিয়া এ মামরার আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে সাক্ষ্য গ্রহণ শুরুর জন্য ১৮ অক্টোবর দিন ধার্য করে দিয়েছেন।

সকালে সাংসদকে কাশিমপুর কারাগার থেকে টাঙ্গাইল আদালতে হাজির করা হয়। অভিযোগ গঠনের শুনানিতে হাজির ছিলেন এই মামলায় কারাগারে বন্দী চার আসামি এবং জামিনে থাকা তিন আসামি। আসামিদের পক্ষ থেকে মামলাটি পুনঃতদন্ত এবং অভিযোগ গঠন না করার আবেদন করা হয়। আদালত আবেদন দুটি খারিজ করে দেন।

এর আগে এ হত্যা মামলায় আটবার তারিখ পড়লেও অসুস্থতার কারণে সাংসদকে হাজির করা হয়নি। মামলার প্রধান আসামি আমানুর রহমান খান রানা টাঙ্গাইল-৩ (ঘাটাইল) আসনের সাংসদ।

দীর্ঘ ২২ মাস পলাতক থাকার পর সাংসদ আমানুর গত বছরের ১৮ সেপ্টেম্বর আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন করেন। আদালত জামিন নামঞ্জুর করে তাঁকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। বর্তমানে তিনি গাজীপুরের কাশিমপুর কারাগারে আছেন। এর আগে উচ্চ আদালত ও নিম্ন আদালতে বেশ কয়েক দফা আবেদন করেও জামিন পাননি তিনি।

উল্লেখ্য, আওয়ামী লীগের টাঙ্গাইল জেলা কমিটির সদস্য ফারুক আহমেদকে ২০১৩ সালের ১৮ জানুয়ারি গুলি চালিয়ে হত্যা করা হয়। ঘটনার তিন দিন পর অজ্ঞাত ব্যক্তিদের আসামি করে তার স্ত্রী নাহার আহমেদ টাঙ্গাইল সদর থানায় হত্যা মামলা করেন।

ওই মামলায় টাঙ্গাইল- ৩ (ঘাটাইল) আসনের এমপি রানাকে প্রধান আসামি করে তার তিন ভাইসহ মোট ১৪ জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দেয় পুলিশ। দীর্ঘদিন পালিয়ে থাকার পর গতবছর ১৮ সেপ্টেম্বর সাংসদ রানা টাঙ্গাইলের আদালতে আত্মসমর্পণ করলে তাকে কারাগারে পাঠান বিচারক। আমানুরের তিন ভাই পলাতক রয়েছেন।

ঢাকা, বুধবার, সেপ্টেম্বর ৬, ২০১৭ (বিডিলাইভ২৪) // জে এইচ এই লেখাটি বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন