সর্বশেষ
রবিবার ১০ই আষাঢ় ১৪২৫ | ২৪ জুন ২০১৮

চট্টগ্রামে নিয়ন্ত্রণহীন মাছ-সবজির বাজার

শনিবার, সেপ্টেম্বর ৯, ২০১৭

820017026_1504941100.jpg
চট্টগ্রাম ব্যুরো :
চট্টগ্রামে ঈদের পরে কয়েকদিন মাছ-সবজির চাহিদা না থাকলেও এর পর চাহিদা বাড়ায় হু হু করে বেড়ে গেছে মাছ-সবজির দাম। ফলে নগরীতে আবারও নিয়ন্ত্রণহীন মাছ ও সবজির বাজার। শনিবার নগরীর চকবাজারের কাঁচা বাজার ঘুরে এ চিত্র দেখা গেছে।

চকবাজারে গিয়ে দেখা যায়, কেজি প্রতি মরিচ ১৩০ টাকা, কেজি প্রতি টমেটো ১২০ টাকা, বেগুন ৭০ টাকা, বরবটি ৬০ টাকা, ঢেঁড়শ ৬০ টাকা, কাকরোল ৭০ টাকা, ঝিঙ্গা ৫০ টাকা ও আলু ২০ টাকা দামে বিক্রি হচ্ছে। এসব সবজিতে ঈদের তিনদিনপর ১০ থেকে ১৫ টাকা কমে বিক্রি করেছেন দোকানিরা।

চকবাজারের সবজি দোকানি মো. মাহবুবুল আলম বলেন, ঈদের তিনদিন পর পর্যন্ত সবিজতে ১০ থেকে ১৫ টাকা পর্যন্ত কম ছিল। কারণ ওই সময়ে সবজির চাহিদা তেমন ছিল না। তাই দামও কম ছিল। তবে এখন চাহিদা বাড়ায় দাম একটু বেড়েছে।

চকবাজার উর্দুগলির বাসিন্দা মো. ইকবাল হোসন বলেন, আমিও একজন ব্যবসায়ী। আমি জানি এর কারণ হলো সিন্ডিকেট। দোকানদাররা যখন তখন ইচ্ছে করেই দাম বাড়ান। পাইকারি বাজারে গিয়ে দেখেন, পণ্যের খুচরা ও পাইকারিতে দামের আকাশ পাতাল ফারাক।

এদিকে সবজির সঙ্গে পাল্লাদিয়ে মাছের বাজারেও দাম বেড়েছে। কাজীর দেউড়ি ও চকবাজারে ইলিশ মাছ কেজিতে বিক্রি হচ্ছে ৫৫০ টাকা। অথচ কোরবানির তৃতীয় দিন পর্যন্ত মাছটির দাম ছিল ৪০০ টাকা। এছাড়া রুই মাছ আকারভেদে ৪০০ থেকে ৭০০ টাকা। তিনদিন আগে দাম ছিল কেজিতে ৩৫০ থেকে ৬০০ টাকা। আইল মাছ ৯৫০ টাকা, চিংড়ি আকার ভেদে ৪০০ থেকে ৭৫০ টাকা, তেলাপোয়া ২০০ টাকা ও লইট্টা মাছ ১২০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

চকবাজারে মাছ কিনতে আসা মো. ইসহাক বলেন, ঈদের তিনদিন মাছ ও সবজির দাম ছিল না। এখন চাহিদা বেড়ে যাওয়ায় ব্যবসায়ীরা সিন্ডিকেট করে দাম বাড়িয়ে দিয়েছেন। তিনি বলেন, কোরবানের ঈদ কোনো বিষয় না, বাজার মনিটরিংয়ের অভাবে দোকানদাররা যখন তখন ইচ্ছে করেই দাম বাড়ান।





ঢাকা, শনিবার, সেপ্টেম্বর ৯, ২০১৭ (বিডিলাইভ২৪) // এস এ এই লেখাটি বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন