bdlive24

‘রোহিঙ্গা সংকট জাতীয় সমস‌্যা, রাজনীতি করতে চাই না’

মঙ্গলবার সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৭, ০৯:০৯ এএম.


‘রোহিঙ্গা সংকট জাতীয় সমস‌্যা, রাজনীতি করতে চাই না’

বিডিলাইভ রিপোর্ট: বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘রোহিঙ্গা সংকট একটি জাতীয় সমস্যা। এ নিয়ে আমরা রাজনীতি করতে চাই না। এই সংকট মোকাবিলা করতে হলে সমগ্র জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করতে হবে।’

সোমবার বিকেলে রাজধানীতে এক আলোচনা সভায় তিনি একথা বলেন। বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার ১০ম কারামুক্তি দিবস উপলক্ষে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে এই সভার আয়োজন করে বিএনপি।

তিনি বলেন, ‘এটা দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বের ওপর আগ্রাসন। রোহিঙ্গাদেরকে স্থায়ীভাবে আশ্রয় দিতে বলছি না। তাদের সাময়িকভাবে আশ্রয় দেওয়া হউক। পরবর্তীকালে রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠাতে আন্তর্জাতিক কূটনৈতিক প্রচেষ্টার মাধ্যমে মিয়ানমার সরকারকে বাধ্য করা হউক।”

রোহিঙ্গা সংকটে সরকারের ভূমিকা নিয়ে বিএনপি নেতাদের সমালোচনার পরিপ্রেক্ষিতে ক্ষমতাসীনরা অভিযোগ করছেন, বিএনপি রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে রাজনীতি করছে।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘বিশ্ব বিবেক যখন রোহিঙ্গা ইস্যুতে জাগ্রত। তখন সরকার কোনো প্রকার প্রস্ততি গ্রহণ করেনি। আমরা যখন কথা বলতে শুরু করেছি, তখন তারা বলতে শুরু করেছে। আমরা নাকি, রোহিঙ্গা ইস্যুতে রাজনীতি করছি?

তিনি বলেন, ‘একটি কথা স্পষ্ট করে বলে দিতে চাই, রোহিঙ্গা ইস্যুতে আমরা কোনো রাজনীতি করতে চাই না।’

সরকার নির্বাচনের আগে খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন মির্জা ফখরুল। তিনি বলেন, দেশে মানুষ যখন প্রস্তুতি নিচ্ছে একটি নির্বাচনের জন্য। সেই নির্বাচনী আওয়াজ শুনতে পেরে সরকার তাদের লোকেরা বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাচ্ছে। মিথ্যা মামলা দিয়ে নেতা-কর্মীদের বন্দি করে নির্বাচনী কৌশল এখন থেকেই গ্রহণ করেছে। কিন্তু দেশের তা কখনই মেনে নেয় না। জনগণ একটি নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, ‘শেখ হাসিনা অধীনে নির্বাচনের প্রশ্নই আসে না। নির্বাচন হবে সহায়ক সরকারের অধীনে। এ নির্বাচন এত সহজে আদায় হবে না। তাই কঠোর আন্দোলনের জন্য প্রস্তুতি নিতে হবে।’

রোহিঙ্গা ইস্যু প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘১৯৭৮ সালে শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান এবং খালেদা জিয়া ১৯৯২ সালে রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে যে চুক্তি করেছিল, সেই চুক্তির মাধ্যমেই মিয়ানমার সরকারকে চাপ দিতে হবে। যাতে রোহিঙ্গারা ফিরে গিয়ে মিয়ানমারে নাগরিকত্ব পান।’

মিয়ানমারের রোহিঙ্গাদের ব্যাপারে সরকারের অবস্থান পরিস্কার করার আহ্বান জানিয়ে স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস বলেন, ‘দেরিতে হলেও সরকারের কয়েকজন রোহিঙ্গাদের দেখতে যাচ্ছেন। তিনি বলেন, ‘বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে সাজা দিয়ে রাজনীতি থেকে দূরে সরিয়ে রাখতে চায় আওয়ামী লীগ সরকার। তবে একটি কথা স্পষ্ট করে বলে দিতে চাই- আগামী দিনে খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানকে বাদ দিয়ে কোনো নির্বাচন হবে না। নির্বাচনের চেষ্টা করা হলে দেশের জনগণ সেই নির্বাচন মেনে নেবেন না। হতে দেবে না।’


ঢাকা, সেপ্টেম্বর ১২(বিডিলাইভ২৪)// পি ডি
 
        print



মোবাইল থেকে অ্যাপস ডাউনলোড করুন
android iphone windows




bdlive24.com © 2010-2014
Powered By: NRB Investment Ltd.