সর্বশেষ
সোমবার ১১ই আষাঢ় ১৪২৫ | ২৫ জুন ২০১৮

প্রতি বেলায় কেমন খাবেন

বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৭

542261910_1505330746.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :
বেঁচে থাকার জন্য খাবার যেমন খুব জরুরি, সুস্থ থাকার জন্য সময়মতো হিসাব করে খাওয়া আরও বেশি জরুরি।

সাধারণত অসময়ে বেশি পরিমাণ খাবার খাওয়ার জন্য নানা ধরনের অসুখ বা সমস্যা তৈরি হয়। এ ছাড়া অসময়ে বেহিসাবি খাবার বাড়াতে পারে ওজন।

যদি শহরের মানুষের কথা বলি, তাহলে সকালে খুব তাড়াহুড়া বা কাজের চাপে বা অনাগ্রহে খাওয়া হয় না তেমন কিছুই। দুপুরে কোনোরকম খেয়ে রাতে বাড়ি ফেরার পর যেন উৎসব শুরু হয়। ভাত খাওয়ার পর রাত জেগে কিছু পড়লে, দেখলে বা গল্প করলেও হালকা কিছু খাওয়া হয়ই। কখনো কখনো সেটা আইসক্রিম, চকলেট, কখনো পাস্তা বা স্যান্ডউইচ।

ঢাকার বারডেম জেনারেল হাসপাতালের প্রধান পুষ্টি কর্মকর্তা শামসুন্নাহার নাহিদ বলেন, একজন মানুষের ওজন, বয়স, উচ্চতা, শারীরিক গঠন ইত্যাদির ওপর নির্ভর করে কতটা ক্যালরি নিতে পারবে, সেটা নির্ধারণ করা হয়। এর বেশি খেয়ে ফেললে ওজন বাড়তে থাকে। সকালে সে তার সারা দিনের প্রায় ২০-২৫ শতাংশ ক্যালরি নিতে পারে। তার মানে সকালে খেতে হবে ভরপেট। সকালে না খেলে ওজন বাড়বে। আর সারা দিন কাজের শক্তিও পাওয়া যাবে না। দেখা যায়, সকালে ঠিকমতো খাওয়া হয় না, এ ধরনের মানুষের মধ্যেই ওজন বাড়া ছাড়াও নানা ধরনের অসুখে পড়ার ঝুঁকি বেশি থাকে।

সকাল আর দুপুরের মাঝের সময়টায় খেতে পারেন যেকোনো একটি মৌসুমি ফল। আমলকী বা বরই ধরনের ফল কয়েকটি খাওয়া যেতে পারে। না হলে আপেল, কমলা, পেয়ারা, কলা ইত্যাদি ফল একটির বেশি নয়।

দুপুরে খুব বেশি না খেয়ে পরিমিত মাছ, ভাত, সবজি বা মাংস খেতে হবে। অনেকেই সকালে না খেয়ে দুপুরে একবারে বেশি পরিমাণ খাবার খান, যা শরীরের জন্য খুবই ক্ষতিকর। সুস্থভাবে বেঁচে থাকার জন্য তিন ঘণ্টা পরপর খেতে হবে। শুধু মনে রাখতে হবে, কোনোভাবেই যেন তা হিসাবের ক্যালরির বাইরে না হয়!

দুপুর আর সন্ধ্যার খাবারের মাঝের সময়টাকে চা বা কফি খেতে চাইলে তা কিন্তু খেতে হবে চিনি ছাড়া। আর বিস্কুট খেলে বা কেক খেলে খেয়াল রাখতে হবে, তা-ও যেন চিনি ছাড়া হয়। চকলেট, আইসক্রিম বা শক্তিবর্ধক এনার্জি ড্রিংকের বদলে খেতে পারেন বাড়িতে বানানো জুস বা সালাদ।

রাতে খেতে হবে খুব হালকা। শামসুন্নাহার নাহিদ বলেন, রাতের খাবার সন্ধ্যার আগে খেয়ে নেওয়া ভালো। খেতে হবে সারা দিনের সব থেকে কম খাবার। সন্ধ্যা পার হলে শুধু পানিজাতীয় খাবার খাওয়া ভালো। তবে কেউ যদি রাত জাগে তাহলে রাতে আরেকবার খেতে পারে, তবে সেটা ভাত বা রুটি নয়। এমন কোনো খাবারও না, যেটি অ্যাসিডিটি তৈরি করবে। বেশি রাতে যদি খেতেই হয়, তবে সালাদ, জুস বা স্যুপজাতীয় খাবার ভালো।

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৭ (বিডিলাইভ২৪) // জেড ইউ এই লেখাটি ২৪ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন