সর্বশেষ
শনিবার ৬ই মাঘ ১৪২৪ | ২০ জানুয়ারি ২০১৮

মিরপুরের স্টেডিয়াম ‘মানসম্মত নয়’ বলছে আইসিসি

শুক্রবার ১৫ই সেপ্টেম্বর ২০১৭

692291871_1505433331.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :
২৭ আগস্ট মিরপুরের শের-ই-বাংলা আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে সিরিজের প্রথম টেস্টে বাংলাদেশের মুখোমুখি হয় অস্ট্রেলিয়া। চারদিনেই শেষ হয় ম্যাচটি। ২০ রানের জয় পায় বাংলাদেশ। তবে ম্যাচের সময় স্টেডিয়ামের আউটফিল্ড নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন ম্যাচ রেফারী।

প্রথম টেস্টে ম্যাচ রেফারীর দায়িত্ব পালন করেছিলেন জেফ ক্রু। আইসিসির পিচ এন্ড আউটফিল্ড মনিটরিং প্রসেসের তিন নং ধারা অনুসারে আইসিসির কাছে প্রতিবেদন জমা দিয়েছেন জেফ ক্রো। প্রতিবেদনে তিনি মিরপুরের শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামের আউটফিল্ড নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন। স্টেডিয়ামের আউটফিল্ড মানসম্মত ছিল না বলে মনে করছেন এ ম্যাচ রেফারি। বৃহস্পতিবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জেফ ক্রো এর অভিযোগের কথা জানায় আইসিসি।

ক্রু এর প্রতিবেদনের কারণে কাঠগড়ায় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। আইসিসি জানিয়েছে ইতিমধ্যেই ক্রু’র প্রতিবেদন পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে বিসিবির কাছে। বিসিবিকে ১৪ দিন সময় বেঁধে দিয়েছে আইসিসি। এই ১৪ দিনের মধ্যেই অভিযোগের জবাব দিতে হবে বিসিবিকে। বিসিবির জবাব খতিয়ে দেখবেন আইসিসির জেনারেল ম্যানেজার জিওফ অ্যালারডাইস ও আইসিসির ম্যাচ রেফারি এলিট প্যানেলের সদস্য রঞ্জন মধুগালে।

আইসিসির এ অভিযোগ নিয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী ইএসপিএনক্রিকইনফোকে বলেন, “আউটফিলদের ঘাস হলো তাদের উদ্বেগের প্রধান কারণ। আমরা জানি কেন আউটফিল্ড তাদের কাছে মানসম্মত নয় বলে মনে হয়েছে। গত দশ বছরের মধ্যে সবচেয়ে বৈরি আবহাওয়া ছিল এবার। গ্রাউন্ডস্টাফরা তাদের সেরা কাজটাই করেছে।”

বিসিবির জবাবে আইসিস সন্তুষ্ট না হলে শাস্তি হতে পারে বিসিবির। শুনতে হতে পারে সতর্কবাণী। এমনকি সর্বোচ্চ ১৫ হাজার ডলার পর্যন্ত জরিমানা হতে পারে বিসিবির। তবে একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে হলে ৩০ হাজার ডলার জরিমানা গুণতে হবে বিসিবিকে।

প্রায় ৯ মাস ধরে খেলা বন্ধ ছিল হোম অব ক্রিকেটে। সবুজ ঘাসে ঢাকা মিরপুর মাঠ হয়ে উঠেছিল বাদামী প্রান্তর। পুরো ম্যাচজুড়ে আউটফিল্ড দেখা গিয়েছে স্লো। আইসিসির অতশী কাঁচের নিচে ধরা পড়লো মাঠের ত্রুটি। সূত্র: বিডিক্রিকটাইম।

ঢাকা, শুক্রবার ১৫ই সেপ্টেম্বর ২০১৭ (বিডিলাইভ২৪) // জেড ইউ এই লেখাটি 12 বার পড়া হয়েছে