সর্বশেষ
শনিবার ১১ই ফাল্গুন ১৪২৪ | ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

ট্রাম্পের ভাষণ শুনতে শুনতে ঘুমিয়ে গেলেন মুগাবে!

2017-09-21 16:13:06

1497051025_1505988785.gif
বিডিলাইভ ডেস্ক :
জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে গত মঙ্গলবার প্রথমবারের মতো ভাষণ দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। পুরো ভাষণেই ট্রাম্প তুলে ধরেন বিশ্বের সন্ত্রাসবাদ ও অবাধ্য রাষ্ট্রের প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের শক্ত অবস্থান। ‘আমেরিকা ফার্স্ট’ নীতিতে বিশ্বাসী ট্রাম্প ভাষণে হুঁশিয়ার করেন উত্তর কোরিয়া, ইরানসহ বেশ কয়েকটি রাষ্ট্রকে দুষ্টু রাষ্ট্র বলেন।

তবে ট্রাম্পের এই জ্বালাময়ী ভাষণ এতটুকু ‘জাগাতে পারেনি’ জিম্বাবুয়ের প্রেসিডেন্ট বরার্ট মুগাবেকে। ভাষণের সময় নিজের আসনে বসে গালে হাত দিয়ে ঘুমিয়ে নিলেন তিনি।

এই ঘুমের জন্য শুধু মুগাবেকে দোষ দেয়া যায় না। কারণ, জিম্বাবুয়ের ৯৩ বছর বয়সী এই একনায়ক ছাড়াও ট্রাম্পের ভাষণের সময় আরো কয়েকজনকে ঘুমিয়ে থাকতে দেখা গেছে!

ট্রাম্প তার বক্তব্যে যখন বলছিলেন, কেন আমেরিকা জাতিসংঘের ব্যবস্থাপনায় অপ্রয়োজনীয় খরচ করবে— এমন সময় ক্যামেরা চলে যায় অধিবেশনস্থলে বসে থাকা জিম্বাবুয়ে সদস্যদের দিকে। সেখানে দেখা যায়, জিম্বাবুয়ে প্রতিনিধিরা কেউ কেউ ঘুমাচ্ছেন। গালে হাত দিয়ে, মাথাটা সামান্য নিচের দিকে ঝুঁকিয়ে ঘুমাচ্ছেন প্রেসিডেন্ট মুগাবে।

তবে মুগাবে যে এবারই প্রথম এমন কাণ্ড করছেন তা নয়; এর আগে ২০০৫ সালে আফ্রিকা ইউনিয়নের মিটিংয়ে নাক ডেকে ঘুমিয়েছিলেন তিনি। এটি নিয়ে সমালোচনা উঠলে মুগাবের মুখপাত্র জর্জ চারামবা সে সময় জানান, তার নেতা ঘুমাচ্ছিলেন না; বরং চোখে আলো পড়ছিল বলে তা বন্ধ করে রেখেছিলেন তিনি।

ব্যাখ্যা যা-ই হোক না কেন, ট্রাম্পের ভাষণে জিম্বাবুয়ের প্রতিনিধিদের এমন ‘ঘুমন্ত প্রতিক্রিয়া’ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সমালোচনার ঝড় তুলেছে। টুইটারে মুগাবে ও অন্য সদস্যদের ঘুমন্ত ছবি দিয়ে অনেকে টুইট করেছেন। ওসাস ক্রুজ নামের এক ব্যক্তি লিখেছেন, ‘তারা ঘুমিয়ে থেকে জিম্বাবুয়ের প্রতিনিধিত্ব করছেন।’

আমেরিকা ফার্স্ট নীতিতে মুগাবের পূর্ণ সমর্থন আছে। যদিও জাতিসংঘের এই মঞ্চে ট্রাম্প তার জিম্বাবুয়ের প্রতিপক্ষের মনোযোগ আকর্ষণে পুরোপুরি ব্যর্থ হয়েছেন।

ঢাকা, 2017-09-21 16:13:06 (বিডিলাইভ২৪) // জে এস এই লেখাটি 0 বার পড়া হয়েছে