সর্বশেষ
শুক্রবার ৮ই আষাঢ় ১৪২৫ | ২২ জুন ২০১৮

'যৌথ ওয়ার্কিং গ্রুপ' গঠন ও বাস্তবায়ন বিলম্বিত পথ: বিএনপি

মঙ্গলবার, অক্টোবর ৩, ২০১৭

1862838683_1507020855.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :
মিয়ানমার বাহিনীর গণহত্যা ও নির্যাতনে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে ‘যৌথ ওয়ার্কিং গ্রুপ’ গঠনের চুক্তিতে মিয়ানমার সম্মত হয়েছে বলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী গতকাল গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন।

জাতিসংঘকে পাশ কাটিয়ে এ ধরনের চুক্তিকে ভাঁওতাবাজি বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

আজ মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টায় নয়াপল্টন দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব মন্তব্য করেন।

বিএনপির এই নেতা বলেন, পররাষ্ট্রমন্ত্রী দেশবাসীকে মন ভোলানো কথা বলেছেন। বৈঠকটি আইওয়াশ ছাড়া আর কিছুই নয়। বৈঠকে রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবর্তনে ‘যৌথ ওয়ার্কিং গ্রুপ’ গঠনের সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন একটি সুদীর্ঘ বিলম্বিত পথ। রোহিঙ্গাদের পূর্ণ নিরাপত্তাসহ স্বদেশে ফেরত নেয়ার কোন তাগিদ নেই সেখানে।

রিজভী বলেন, মিয়ানমারের মন্ত্রী বাংলাদেশ সফরের সময়ও সেখানে রোঙ্গিাদের ওপর বর্বর নির্যাতন অব্যাহত রয়েছে। তাদের নির্যাতনে সেখান থেকে এখনও হাজার হাজার রোহিঙ্গা পালিয়ে আসছেন।

তিনি বলেন, কিভাবে নোবেল পুরস্কারের মতো একটি আন্তর্জাতিক পুরস্কার হাতিয়ে নেয়া যায় সেজন্য প্রধানমন্ত্রী ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন। শোনা যাচ্ছে এজন্য তিনি নাকি টাকার বিনিময়ে লবিস্টও নিয়োগ করেছেন। প্রধানমন্ত্রী জাতিসংঘের মতো আন্তর্জাতিক ফোরামে গিয়েও রোহিঙ্গা সংকটের কোন সুরাহা করতে না পেরে ব্যর্থ হয়ে ফিরে আসছেন।

রুহুল কবির রিজভী বলেন, রোহিঙ্গাদের দুর্দশা বিক্রি করে পুরস্কার প্রাপ্তির আশায় উৎসবে ব্যস্ত সরকার। গণবিরোধী নীতির কারণেই ইতিহাসের রঙ্গমঞ্চে আওয়ামী লীগ বরাবরই খলনায়কের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, বিএনপি নেতা আবদুস সালাম, আজিজুল বারী হেলাল, আবদুস সালাম আজাদ, মুনির হোসেন, আসাদুল করিম শাহীন, আমিনুল ইসলাম প্রমুখ।



ঢাকা, মঙ্গলবার, অক্টোবর ৩, ২০১৭ (বিডিলাইভ২৪) // এস এ এই লেখাটি বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন