সর্বশেষ
মঙ্গলবার ২রা মাঘ ১৪২৪ | ১৬ জানুয়ারি ২০১৮

পাবলো নেরুদার মৃত্যু নিয়ে ধোঁয়াশা

শনিবার ২১শে অক্টোবর ২০১৭

1433938206_1508592415.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :
চিলির নোবেল বিজয়ী কবি পাবলো নেরুদা ক্যান্সারে মারা যাননি। শুক্রবার আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞরা নিশ্চিতভাবে এ কথা জানিয়ে বলেছেন, তবে তাকে দেশটির একনায়ক অগাস্তো পিনোচেটের সরকার হত্যা করেছে এমন সুনির্দিষ্ট কোন প্রমাণও পাওয়া যায়নি। খবর এএফপি’র।

বিখ্যাত কবি, রাজনীতিবিদ ও কূটনীতিক নেরুদা ১৯৭৩ সালে ৬৯ বছর বয়সে মারা যান। তিনি সান্তিয়াগোর একটি ক্লিনিকে মারা যান। সেখানে তিনি প্রোস্টেট ক্যান্সারের চিকিৎসা নিচ্ছিলেন।

এক রক্তক্ষয়ী সামরিক অভ্যুত্থানের মধ্য দিয়ে সমাজতান্ত্রিক প্রেসিডেন্ট সালভাদর আলেন্দি ক্ষমতাচ্যুত হওয়ার পর পিনোচেট দেশের দায়িত্ব গ্রহণের কয়েকদিনের মধ্যে তার মৃত্যু হয়।

চিলির কমিউনিষ্ট পার্টির বিশিষ্ট সদস্য নেরুদা মেক্সিকোতে পালিয়ে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। সেখান থেকে পিনোচেট সরকারের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলার পরিকল্পনা ছিল তার।

বিশেষজ্ঞ প্যানেলের পক্ষ থেকে এক সংবাদ সম্মেলনে অরেলিও লুনা বলেন, ডেথ সার্টিফিকেটে তার মৃত্যুর প্রকৃত কোন কারণ উল্লেখ ছিল না। তবে সরকারি বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়, তিনি ক্যান্সারে মারা যান। কিন্তু মৃত্যুর ঠিক আগে আগে তার শরীরে এক রহস্যজনক ইনজেকশন পুশ করা হয় ২০১১ সালে নেরুদার সাবেক ড্রাইভার ও ব্যক্তিগত সহকারীর এ দাবির কারণে বিষয়টি নিয়ে তদন্ত শুরু হয়।

পিনোচেট ১৭ বছর চিলি শাসন করেন। এ সময়ে বামপন্থী প্রায় তিন হাজার ২শ অ্যাক্টিভিস্টসহ বিরোধী মতের অন্য লোকজনকে তিনি হত্যা করেন। তিনি ২০০৬ সালে ৯১ বছর বয়সে মারা যান। কিন্তু তার শাসনামলে সংঘটিত অপরাধের জন্যে তাকে কখনই কোন সাজা পেতে হয়নি। সূত্র: বাসস

ঢাকা, শনিবার ২১শে অক্টোবর ২০১৭ (বিডিলাইভ২৪) // ই নি এই লেখাটি 0 বার পড়া হয়েছে