bdlive24

দেশে অবৈধ আইফোন টেন, নিরাপত্তা ঝুঁকির শঙ্কা গোয়েন্দাদের

মঙ্গলবার নভেম্বর ১৪, ২০১৭, ১০:০৪ এএম.


দেশে অবৈধ আইফোন টেন, নিরাপত্তা ঝুঁকির শঙ্কা গোয়েন্দাদের

বিডিলাইভ রিপোর্ট: দেশের বাজারে বিটিআরসি’র অনুমোদনহীন আইফোন টেন ছড়িয়ে পড়ায় নিরাপত্তা ঝুঁকির শঙ্কা প্রকাশ করেছে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতর।

গতকাল সোমবার (১৩ নভেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টা থেকে বসুন্ধরা সিটি মার্কেট, ধানমন্ডির অরচার্ড ও গুলশানের মলিক্যাপিটা মার্কেটে বিটিআরসি, শুল্ক গোয়েন্দা ও ডিএমপি একযোগে অভিযান চালায়। এসময় বিপুল পরিমাণ আইনফোন টেন জব্দ করা হয়েছে। এসব ফোন কোনও অনুমোদন ছাড়াই দেশের বাজারে ছাড়া হয়েছে।

রাজধানীর তিনটি শপিং মল থেকে আইফোন টেন সহ বিভিন্ন ব্র্যাণ্ডের দু’শতাধিক অবৈধ মোবাইল ফোন জব্দ করেছে বিটিআরসি ও শুল্ক গোয়েন্দা অধিদফতর। এসময় একটি ড্রোনও উদ্ধার করা হয়।

শুল্ক গোয়েন্দা কর্মকর্তাদের অভিযোগ, আইফোন টেনের এখনও আইএমইআই নম্বর বিটিআরসি দেয়নি। অথচ এসব লেটেস্ট মডেলের ফোন বাজারে দেদারসে বিক্রি করা হচ্ছে। ব্যক্তিগত ব্যবহারের কথা বলে একটি চক্র শুল্ক ফাঁকি দিয়ে এসব ফোন দেশে নিয়ে আসছে। এরপর সেগুলো বাজারে বিক্রি করা হচ্ছে। এতে শুল্ক ফাঁকির পাশাপাশি স্বাস্থ্য ঝুঁকিও রয়েছে বলে দাবি করছে বিটিআরসি ও শুল্ক গোয়েন্দা অধিদফতর।

শুল্ক গোয়েন্দা অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক জিয়াউদ্দিনের নেতৃত্বে বসুন্ধরা সিটিতে অভিযান পরিচালিত হয়। তিনি কয়েকটি দোকানে অভিযান শেষে সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমরা এখানে দেখলাম, খুবই দামি ফোন আইফোন টেন,যা বিটিআরসি’র অনুমোদন ছাড়াই বাজারে বিক্রি করা হচ্ছে। এই ফোন এখনও বিটিআরসি থেকে অনুমোদন পায়নি। এটা বিক্রি হওয়ার মানেই সরকারের রাজস্ব ফাঁকি হচ্ছে। এমনকি এটি নকলও হতে পারে। এতে সাধারণ মানুষ প্রতারিত হতে পারে। এই ফোনে নিরাপত্তার ঝুঁকিও থাকতে পারে।’

তিনি বলেন, ‘বসুন্ধরায় আমরা এ পর্যন্ত যে অভিযান পরিচালনা করেছি, তাতে ধারণা করছি-সরকারের ৩০/৪০ লাখ টাকা রাজস্ব ফাঁকি হয়েছে।’

বসুন্ধরা থেকে শতাধিক আইফোন টেন জব্দ করা হয়েছে উল্লেখ করে জিয়াউদ্দিন বলেন, ‘জব্দ করা মোবাইল ফোনের বিষয়ে আইন আনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

বিদেশ থেকে ফোন আনার কৌশল উল্লেখ করে জিয়াউদ্দিন বলেন, ‘তারা ১০/২০ জন ক্যারিয়ার ঠিক করে, যারা দেশের বাইরে যান। তাদের মাধ্যমে ফোনগুলো নিয়ে আসে। তাদের উদ্দেশ্য ব্যবসা করা। এখানে ব্যাগেজ রুলের যে উদ্দেশ্য তা লুণ্ঠিত হচ্ছে। তারা আইনের সুযোগটি নেয়।’

শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতরের মহাপরিচালক ড. মইনুল খান এক বার্তায় জানান, শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতর গুলশান, বসুন্ধরা সিটি মার্কেট ও ধানমন্ডি এলাকায় যুগপৎভাবে অবৈধ উপায়ে আমদানি করা মোবাইল ফোন সেট আটকে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করেছে। শুল্ক গোয়েন্দাদের অভিযানে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ ফোর্স এবং বিটিআরসি কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বসুন্ধরা মার্কেটের ৯ টি দোকান, গুলশান এভিনিউতে ১টি ও ধানমন্ডির অরচার্ড পয়েন্টে ১টি সহ মোট ১১টি দোকানে এই অভিযান পরিচালিত হয়। এই অভিযানে চোরাইপথে আনা আইফোন টেন-সহ অন্যান্য মূল্যবান ব্র্যান্ডের প্রায় দুই শতাধিক মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়। এইসব ব্র্যান্ডের মধ্যে আইফোন, স্যামসাং গ্যালাক্সি এস-৮, নোকিয়া এক্স-৩, ব্ল্যাকবেরি ফোন সেট রয়েছে।

জব্দ করা মোবাইল সেটগুলোর মধ্যে আইফোন টেন ১৫টি, অন্যান্য মডেলের আইফোন ১১৮টি, অ্যাপল আইপ্যাড ৮ টি, স্যামসাং  ৫৮টি, নোকিয়া ২টি, VERTU ব্র্যান্ডের ১টি এবং ২টি ব্ল্যাকবেরি সেট রয়েছে। আটক মোবাইল ফোনের মোট মূল্য প্রায় এক কোটি টাকা।

দোকানগুলোর মধ্যে  ‘ফোন এক্সচেঞ্জ’ থেকে সবচেয়ে বেশি সংখ্যক চোরাই মোবাইল ফোনসেট উদ্ধার করা হয়। গুলশান ও বসুন্ধরা মার্কেটের ‘ফোন এক্সচেঞ্জ’র দুটো শো-রুম থেকে মোট ৮৮টি দামী সেট উদ্ধার করা হয়েছে।

ফোনএক্সচেঞ্জ-এর গুলশান শো-রুম থেকে একটি ড্রোন (ব্র্যান্ড DJI, Model: GL200A) উদ্ধার করা হয়েছে। বর্তমানে  দেশে ড্রোন আমদানি নিষিদ্ধ পণ্য। একইসঙ্গে এই শো-রুম থেকে VERTU ব্র্যান্ডের একটি এক্সক্লুসিভ মোবাইল ফোন সেট জব্দ করা হয়। এই সেটটি স্বর্ণ দিয়ে মোড়ানো এবং এর স্ক্রিনটি সলিড নীলকান্তমণির তৈরি। বাংলাদেশি টাকায় এই ফোনের মূল্য প্রায় ১৭ লাখ টাকা। কাগজপত্র দেখাতে না পারায় ধারণা করা হচ্ছে, এসব ফোনসেট অবৈধ পথে এবং শুল্ক না দিয়ে আনা হয়েছে।

বিটিআরসি’র কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে জব্দ করা সেটগুলোর আইএমইআই পরীক্ষা করে বলেছেন, এগুলো নিবন্ধিত নয়।

শুল্ক গোয়েন্দাদের সূত্র জানায়, এই সেটগুলোতে শুধুমাত্র রাজস্ব ফাঁকিই দেওয়া হয়নি,  আইএমইআই  নিবন্ধিত না থাকায় এগুলো রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তার জন্য ঝুঁকিপূর্ণ। বিটিআরসি’র নিবন্ধন না থাকার কারণে এসব ফোন কোনও সরকারি সংস্থা আইনিভাবে ট্র্যাক করতে পারে না। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর নজরদারি এড়িয়ে এই সেটগুলো ব্যবহার করে যেকোনও ধরনের অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড সংঘটিত হতে পারে।

আমদানি নীতি আদেশ ২০১৫-১৮ অনুযায়ী, বাংলাদেশে যেকোনও মোবাইল ফোনসেট বাণিজ্যিকভাবে আমদানি করতে হলে বিটিআরসি থেকে সেগুলোর আইএমইআই  নম্বর পূর্বেই নিবন্ধিত করার বিধান রয়েছে।

আইফোন টেন মোবাইল সেটটির ব্যবহার এখনও বাংলাদেশে অফিসিয়ালি উদ্বোধন করা হয়নি। বিটিআরসি থেকেও আইফোন টেন এর কোনও নিবন্ধন প্রদান করা হয়নি। অথচ বিভিন্ন শপিং মলে এই সর্বশেষ মডেলের ফোন অবাধে কেনাবেচা হচ্ছে।


ঢাকা, নভেম্বর ১৪(বিডিলাইভ২৪)// পি ডি
 
        print

এই বিভাগের আরও কিছু খবর







মোবাইল থেকে অ্যাপস ডাউনলোড করুন
android iphone windows




bdlive24.com © 2010-2014
Powered By: NRB Investment Ltd.