bdlive24

খানা খন্দকে ভরা ঢাবি ক্যাম্পাস

বুধবার নভেম্বর ১৫, ২০১৭, ০২:২৯ পিএম.


খানা খন্দকে ভরা ঢাবি ক্যাম্পাস

ঢাবি প্রতিনিধি: কোথাও ছোট আবার কোথাও বিশাল গর্ত, কোথাও বিশাল অংশজুড়ে উঠে গেছে বিটুমিন, পাথর। সামান্য বৃষ্টিতে সৃষ্টি হয় জলাবদ্ধতা। রিকশা, সাইকেল, গাড়িতে পথ চলতে ঝক্কির শেষ নেই। দীর্ঘদিন ধরে সংস্কার না থাকার কারণে এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মল চত্ত্বরের তিন সড়কে।

মল চত্বরের চারটি সড়কের মধ্যে একমাত্র প্রশাসনিক ভবনের সামনের সড়কটি নিয়মিত সংস্কার হয়। ভিসি চত্বর-জিয়া হল, ভিসি চত্বর-সূর্যসেন হল, ভিসি চত্বর-বিজনেস ফ্যাকাল্টির সড়কগুলোর বেহাল দশা। এই তিনটি সড়কে সংস্কার হয়নি প্রায় এক যুগ।

এই সড়কগুলো দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের মাস্টার দা সূর্যসেন হল, কবি জসীম উদ্‌দীন হল, বিজয় একাত্তর হল, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল, জিয়াউর রহমান হল ও পি জে হার্টগ ইন্টারন্যাশনাল হলের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা যাতায়াত করেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হলগুলোর অধিকাংশের অবস্থান এ অংশে হওয়ায় এই সড়কগুলোর ব্যবহার বেশি। সড়কের এ অবস্থার কারণে বাইক নিয়ে পিছলে পড়ে গেছেন অনেকে। রাতে আলো কম থাকার কারণে হোঁচট খেয়ে অনেকেই আহত হয়েছে। এ রকম ছোট ছোট দুর্ঘটনার কারণে ভোগান্তিতে রয়েছেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

দ্রুত সংস্কারের দাবি জানিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বাস্থ্য অর্থনীতির চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী রাইসুল ইসলাম বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবন, কলাভবন ও বিজনেস অনুষদের সামনের এ সড়কগুলোতে শিক্ষার্থীদের বিচরণ সবচেয়ে বেশি। অথচ এর সংস্কার হয় না। এটা কর্তৃপক্ষের অবহেলা। সড়কগুলো নিয়মিত সংস্কারের মধ্যে রাখা প্রয়োজন।

ম্যানেজমেন্ট বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী জোবায়ের উদ্দীন আরমান বলেন, সড়কগুলোর খুব খারাপ অবস্থা। রিকশায় গেলে ঝাঁকুনি আর হাঁটলে হোঁচট খেতে হয়।

গত কয়েকদিন আগে বাইক নিয়ে যাওয়ার সময় পড়ে গিয়ে আহত হওয়া এক শিক্ষার্থী বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের অনেক টাকা বাজেট পাস হয়। অথচ সড়কগুলো দীর্ঘদিন ধরে সংস্কার হয় না। শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের সেবার জন্য টাকা খরচ না হলে এতো টাকা কোথায় ব্যয় হয়। প্রশ্ন রাখেন এই শিক্ষার্থী।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রকৌশল বিভাগের এক কর্মকর্তা বলেন, সড়কগুলো নষ্ট হওয়ার কারণ বৃষ্টিতে জলাবদ্ধতা তৈরি হওয়া। দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা করে সংস্কার করতে হবে। সেজন্য বিটুমিন বাদ দিয়ে পুরোটা কংক্রিট দিয়ে ঢালাই করলে ভালো। তাহলে বৃষ্টিতে কোনো ধরনের ক্ষতি হবে না।

বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. গিয়াস উদ্দিন আহম্মদ বলেন, সড়কগুলোর কাজ শিগগিরই শুরু করা হবে। টেন্ডার নিয়ে জটিলতা থাকায় কাজ শুরু করতে দেরি হচ্ছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান প্রকৌশলী (ভারপ্রাপ্ত) একেএম আফজালুল হক বলেন, একটি সড়কের টেন্ডার হয়েছে। দ্রুত কাজ শুরু হবে। বাকি দুইটার টেন্ডারের প্রক্রিয়া চলছে।


ঢাকা, নভেম্বর ১৫(বিডিলাইভ২৪)// এস আর
 
        print

এই বিভাগের আরও কিছু খবর







মোবাইল থেকে অ্যাপস ডাউনলোড করুন
android iphone windows




bdlive24.com © 2010-2014
Powered By: NRB Investment Ltd.