সর্বশেষ
সোমবার ১১ই আষাঢ় ১৪২৫ | ২৫ জুন ২০১৮

মেসেজের শেষে ডট বাদ দিন!

শনিবার, ডিসেম্বর ১২, ২০১৫

110323149_1449916143.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :
মাত্র একটি ডট যে এত শক্তিশালী হতে পারে তা আগে কেউ ভাবতে পারেনি। সম্প্রতি জানা গেছে, ক্ষুদে বার্তার শেষে ফুলস্টপ বা ডট দেওয়া হলে তা আপনাকে আগ্রাসী কিংবা উদাসীন হিসেবে প্রকাশ করবে। এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে ফক্স নিউজ।

কারো সঙ্গে মেসেজ চালাচালি বা ক্ষুদেবার্তা বিনিময়ের সময় অন্য কেউ যদি কথা শেষে ফুল স্টপ ব্যবহার করে তাহলে তাতে কি আপনি বিরক্ত হয়েছেন? গবেষকরা বলছেন, এমনটা হওয়াই স্বাভাবিক। সম্প্রতি এক গবেষণায় বিষয়টি জানতে পেরেছেন নিউ ইয়র্কের বিংহ্যামটন ইউনিভার্সিটির গবেষকরা।

মেসেজের শেষে ফুলস্টপ দেওয়ার ক্ষতিকর এ বিষয়টি জানার জন্য গবেষকরা ১২৬ জন গ্র্যাজুয়েটের ওপর সমীক্ষা চালান। এটি খুব বড় সংখ্যা না হলেও এ গবেষণায় যে বিষয়টি জানা গেছে তা অনেকেরই বেশ আগ্রহী করে তুলেছে। ১৬টি পৃথক পরীক্ষায় দেখা যায়, ক্ষুদেবার্তার শেষে ডট থাকলে তা মেসেজ গ্রহণকারীর মনে সংশয় জাগিয়ে তোলে। তবে এ গবেষণায় শুধু ডিজিটাল মাধ্যমে পাঠানো মেসেজ অন্তর্ভুক্ত করা হয়। হাতে লেখা মেসেজ এতে অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি।

এ বিষয়ে গবেষকদলের প্রধান সেলিয়া ক্লিন এক প্রেস রিলিজে জানিয়েছেন, ‘মুখোমুখি যোগাযোগের ক্ষেত্রে নানা সামাজিক ইঙ্গিত ব্যবহৃত হলেও ক্ষুদেবার্তা আদান-প্রদানে তা থাকে না। যদিও কথা বলার সময় আমরা একে অন্যের নানা আবেগগত বিষয় বুঝতে পারি।’

তিনি আরো জানান, আমরা লেখার মাধ্যমে প্রকাশের সময় সামনে থাকা ইমোটিকন ও অন্য ছোটখাট সঙ্কেতের মাধ্যমেও প্রকাশ করতে পারি এসব আবেগগত ইঙ্গিত। আমাদের তথ্যে দেখা যাচ্ছে এগুলো শব্দের মতোই অনুভূতি প্রকাশে কাজ করতে পারে। এ ধরনের একটি বিষয় হলো লেখার শেষে ডট দেওয়া। গবেষণাটির ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে কম্পিউটার্স ইন হিউম্যান বিহ্যাভিওর জার্নালে।

ঢাকা, শনিবার, ডিসেম্বর ১২, ২০১৫ (বিডিলাইভ২৪) // এম এস এই লেখাটি ৩৭২৭ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন