সর্বশেষ
সোমবার ৯ই আশ্বিন ১৪২৫ | ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮

খারাপ স্বপ্ন দেখে ঘুম ভাঙলে ইসলামিক করণীয়

মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ২২, ২০১৫

434780321_1450806197.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :
যদি খারাপ বা ভীতিকর কোনো স্বপ্ন দেখা হয়, তাহলে বাকি রাত আর ঘুম আসতে চায় না। কিন্তু স্বাভাবিক জীবন ধারণের জন্য ঘুমের বিকল্প নাই। পর্যাপ্ত ঘুম না হলে কাজে মনযোগী হওয়া অসম্ভব। তাই, ঘুম চাই নিরবিচ্ছিন্ন।

ছাড়া ছাড়া বা ভাঙা ভাঙা ঘুমে অস্বস্তি আরো বাড়ে। তারপরও এক্ষেত্রে আমরা যদি ঘুমের দোয়া পড়ে ঘুমাই, তখন শয়তান আমাদের ঘুমে প্রভাব ফেলতে পারে না। খারাপ বা ভীতিকর স্বপ্ন দেখিয়ে ঘুম ভাঙতে পারবে না।

হাদিসে বর্ণিত ঘুমের দোয়া হলো- ‘আল্লাহুম্মা বিসমিকা আমুতু ওয়া আহইয়া।’ অর্থ: ‘হে আল্লাহ! তোমারই নামে আমি মৃত্যুবরণ করছি এবং তোমারই অনুগ্রহে জীবিত হব।’ [সহিহ বুখারি]

ঘুমের স্বপ্ন অনেক সময় ভালো হয়, অনেক সময় মন্দ। সব ভালো স্বপ্ন আল্লাহর পক্ষ থেকে হয়ে থাকে। খারাপ স্বপ্ন শয়তানের পক্ষ থেকে। খারাপ স্বপ্ন দেখে ঘুম ভেঙে গেলে করণীয় সম্পর্কে কোরআন-হাদিসে কিছু দোয়ার কথা বর্ণিত হয়েছে।

হাদিসে রাসুল সা. বলেন, ‘যখন তোমরা কেউ মন্দ স্বপ্ন দেখবে তখন এই দোয়া পড়বে: হে আল্লাহ! তোমার জাতের আশ্রয় প্রার্থনা করছি শয়তানের কার্যাদি ও মন্দ স্বপ্ন সমূহ থেকে।’

অন্যত্র বলা হয়েছে, ‘খারাপ স্বপ্ন দেখলে তিনবার ‘আউযুবিল্লাহি মিনাশ শাইতানির রাজীম’ (অর্থ: অাশ্রয় প্রার্থনা করছি আল্লাহর নিকট বিতাড়িত শয়তান থেকে) পড়বে এবং বাম দিকে থুথু নিক্ষেপ করবে এবং তিনবার আসতাগফিরুল্লাহ পড়বে।’

অন্য হাদিসে বলা হয়েছে: ‘যখন ভীতিকর কোনো স্বপ্ন দেখবে তখন জাগ্রত হওয়ার সাথে সাথে পার্শ্ব পরিবর্তণ করবে। অতঃপর তিন বার আউজুবিল্লাহ পড়বে এবং বাম দিকে থুথু ফেলবে [মকবুল দুআ: পৃষ্ঠা ৯২-৯৩]।

ঢাকা, মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ২২, ২০১৫ (বিডিলাইভ২৪) // আর এ এই লেখাটি ৮৬৫৮ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন