কোচের আস্থার প্রতিদান দিতে চান ইমরুল
কোচের আস্থার প্রতিদান দিতে চান ইমরুল

২০০৮ সালের দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে টেস্ট অভিষেক হয় ইমরুল কায়েসের। সামনে আবারো দক্ষিণ আফ্রিকা সফর! অভিষেকের আঙিনায় ফিরে নিজেকেও ফিরে পেতে চান বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সর্বশেষ সিরিজটা মনে রাখার মতো হলেও ব্যক্তিগত পারফরম্যান্সের দিকে তাকালে সিরিজটা ভুলে থাকতেই চাইবেন ইমরুল। দুই টেস্টে চার ইনিংসে করেছেন ২১ রান। সিরিজটা বাজে গেলেও দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে তার ওপর আস্থা রেখেছে টিম ম্যানেজমেন্ট। বিশেষভাবে কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহে।

কোচ বলেছেন, একজন খেলোয়াড় চারটা ইনিংস খারাপ খেলেছে বলে তো আমরা তাকে বাদ দিতে পারি না।

আমাকে বলেছেন, তুমি টানা দুই-তিন বছর টেস্ট ক্রিকেটে রান করেছো। সব ফরম্যাটেই রান করেছো। দুই-চারটা ইনিংস খারাপ করলেই তোমাকে বাদ দিতে পারি না। আমাকে বলেছেন, তুমি খেলে যাও। অসুবিধা নেই।

সিরিজটা বাজে যাওয়ার পরও যে কোচের সুদৃষ্টিতে আছেন, এটিই আত্মবিশ্বাস যোগাচ্ছে ইমরুলকে, আমার জন্য অবশ্যই চ্যালেঞ্জিং হবে। নিজেও সেটা ভালোভাবে জানি। যেহেতু শেষ সিরিজটি ভালো খেলিনি। আসলে দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজ না, প্রতিটি সিরিজই আমার জন্য চ্যালেঞ্জিং। আমি চেষ্টা করব চ্যালেঞ্জ হিসেবেই নিতে। চেষ্টা করব মানিয়ে নিয়ে ভালো খেলতে।

বছরের শুরুতে ওয়েলিংটন সিরিজে চোটে পড়েন ইমরুল। এ বাহাতির মতে, চোটে না পড়লে তার পারফরম্যান্স হতো আরো ভালো। নিউজিল্যান্ডে চোটে পড়ার পর শ্রীলঙ্কায় গিয়ে পুরোপুরি সেরে উঠতে পারিনি। সব মিলিয়ে নিজেকে দুর্ভাগা বলব। যেভাবে ছন্দে ছিলাম।
 
নিজেও জানি, একটা সিরিজ খারাপ করলেই আমার জন্য অনেক চাপ। চেষ্টা করি প্রতিটি সিরিজে রান করার। কখনো সফল হই, কখনো হই না। যে কদিন খেলব চেষ্টা করব প্রতিটিতেই ভালো করার।

ঢাকা, সেপ্টেম্বর ১৩(বিডিলাইভ২৪)