সর্বশেষ
বৃহঃস্পতিবার ৯ই বৈশাখ ১৪২৮ | ২২ এপ্রিল ২০২১

বড় সিদ্ধান্ত নিলেন চিলির আইনপ্রণেতারা

শুক্রবার, ডিসেম্বর ২০, ২০১৯

chili-protest-180091.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

দক্ষিণ আমেরিকার দেশ চিলিতে গত দুই মাস ধরে যে লাগাতার আন্দোলন চলছে, তার অন্যতম প্রধান দাবি ছিল সংবিধানের বদল। এ বিষয়ে বড় সিদ্ধান্ত নিলেন দেশটির আইনপ্রণেতারা।

স্বৈরশাসক অগাস্তো পিনোশের আমলে হওয়া সংবিধান বদলে আগামী বছরের এপ্রিলে নতুন একটি সংবিধান প্রণয়নে গণভোট আয়োজনে সায় দিয়েছে চিলির আইনপ্রণেতারা। বুধবার কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ এবং পরদিন উচ্চকক্ষ সিনেটে এ সংক্রান্ত প্রস্তাবটি পাস হয়েছে বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

গণভোট আয়োজনে রাজি হলেও, নতুন সংবিধানে নারী, আদিবাসী ও রাজনৈতিক দলের কর্মী নন এদের প্রতিনিধিত্ব নিশ্চিত করার বিধান রাখার একটি প্রস্তাব ডানপন্থি সাংসদদের প্রতিবাদের মুখে শেষ পর্যন্ত গৃহীত হয়নি।

সামরিক শাসক পিনোশের ১৯৭৩ থেকে ১৯৮০ সালের শাসনামলে চিলির এখনকার সংবিধানটি গৃহীত হয়েছিল। এ সংবিধান দেশটির নাগরিকদের পূর্ণাঙ্গ স্বাস্থ্যসেবা ও শিক্ষার নিশ্চয়তা এবং সরকারব্যবস্থায় নাগরিকদের অংশগ্রহণের সুযোগ নেই বলে সমালোচকরা দীর্ঘদিন ধরেই অভিযোগ করে আসছেন।

এপ্রিলের গণভোটে চিলিবাসীর কাছে নতুন সংবিধানের অনুমতি চাওয়ার পাশাপাশি খসড়া সংবিধান প্রণয়নে নতুন নির্বাচিত সংসদ না কি এখনকার আইনপ্রণেতাদের সংমিশ্রণে একটি কমিটি করা হবে, সে বিষয়েও রায় চাওয়া হবে।


ঢাকা, শুক্রবার, ডিসেম্বর ২০, ২০১৯ (বিডিলাইভ২৪) // এ এম এই লেখাটি ৭৩৬ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন