সর্বশেষ
শুক্রবার ১০ই আশ্বিন ১৪২৭ | ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০

বিশ্বব্যাংক বাংলাদেশকে ৯ হাজার কোটি টাকা ঋণ দিচ্ছে

শনিবার, জুন ২০, ২০২০

worldbank.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

বিশ্বব্যাংক বাংলাদেশকে ১০৫ কোটি মার্কিন ডলার ঋণ দেবে। এই অর্থ বাংলাদেশের প্রায় ৯ হাজার কোটি টাকার মতো। মানসম্পন্ন কর্মসংস্থান সৃষ্টি, কোভিড-১৯ বা করোনাভাইরাস মহামারির পরিস্থিতিতে অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধারের গতি জোরদার এবং ভবিষ্যতে সঙ্কট মোকাবিলা করে ঘুরে দাাঁড়ানোর সক্ষমতা অর্জন করা-এমন তিনটি প্রকল্পের জন্য বিশ্বব্যাংক এই অর্থ অনুমোদন করেছে।

শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটনে অবস্থিত বিশ্ব ব্যাংকের প্রধান কার্যালয় এই ঋণ অনুমোদন দেয়। শনিবার বিশ্ব ব্যাংকের ঢাকা কার্যালয় এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

এ বিষয়ে বিশ্বব্যাংকের বাংলাদেশ ও ভুটান কান্ট্রি ডিরেক্টর মারসি টেম্বন বলেন, করোনায় সৃষ্ট অপ্রত্যাশিত সংকটের জন্য এই অর্থ বরাদ্দ করা হলো। কারণ করোনা বাংলাদেশের অসংখ্য মানুষকে বিপদগ্রস্ত করেছে। ৩ প্রকল্পে এই অর্থায়ন মানুষকে সহযোগিতা করবে এবং বিনিয়োগ ও অনেক কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হওয়ায় অর্থনীতি আবার আগের অবস্থায় ফিরে আসবে।

বিশ্বব্যাংক বলছে, প্রাইভেট ইনভেস্টমেন্ট অ্যান্ড ডিজিটাল এন্টারপ্রিনিউরশিপ (প্রাইড) প্রকল্পে ৫০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার খরচ করা হবে। এতে দেড় লাখ মানুষের কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি হবে। তার মধ্যে ৪০ শতাংশ সফটওয়্যার পার্কে এবং ২০ শতাংশ বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলে।

এছাড়া এনহেন্সিং ডিজিটাল গভর্নমেন্ট অ্যান্ড ইকোনমি (ইডিজিই) প্রকল্পে খরচ করা হবে ২৯৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। এতে ১ লাখ মানুষের কাজের সুযোগ তৈরি হবে, বিশেষ করে নারীদের প্রতি গুরুত্ব দেয়া হবে। সেকেন্ড প্রোগ্রামেটিক জবস ডেভেলপমেন্ট পলিসি ক্রেডিট খাতে ২৫০ মিলিয়ন ডলার ঋণ দেয়া হবে। যা করোনা মোকাবিলা, অর্থনীতিতে স্থিতিশীলতা ফিরিয়ে আনা এবং অরক্ষিত মানুষকে করোনার ধাক্কা কাটিয়ে উঠতে সহায়তা করবে।


ঢাকা, শনিবার, জুন ২০, ২০২০ (বিডিলাইভ২৪) // রি সু এই লেখাটি ৪৫৫ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন