সর্বশেষ
বৃহঃস্পতিবার ৯ই বৈশাখ ১৪২৮ | ২২ এপ্রিল ২০২১

আগামী শীতে করোনা সংকট কেটে যাবে

সোমবার, নভেম্বর ১৬, ২০২০

014.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

করোনার একটি ভ্যাকসিন তৈরির কাজের সাথে জড়িত একজন বিজ্ঞানী আশা প্রকাশ করেছেন, ভ্যাকসিন ব্যাপকভাবে সরবরাহ করা সম্ভব হলে পরবর্তী শীত নাগাদ জীবন স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরতে পারে।

যুক্তরাষ্ট্রের বৃহৎ ঔষধ কোম্পানী ফাইজারের সাথে যৌথভাবে জার্মান বায়োটেক যে ভ্যাকসিনটি তৈরি করছে তার সহ প্রতিষ্ঠাতা তুরস্কের ইগুর শাহীন রোববার বৃটিশ টেলিভিশনকে এ কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, সবকিছু ঠিকঠাক মতো চললে চলতি বছরের শেষে কিংবা আগামী বছরের প্রথম দিকে আমরা ভ্যাকসিন সরবরাহ শুরু করতে পারবো।

শাহীন বলেন, আমাদের লক্ষ্য আগামী বছরের এপ্রিল নাগাদ ভ্যাকসিনের ৩০ কোটি ডোজ সরবরাহ করা। তিনি আশা করেন, গ্রীস্মে সংক্রমণ কমবে। তবে শরৎ নাগাদ ব্যাপকহারে টিকা গ্রহণ করতে হবে। শাহীন বলেন, উল্লেখযোগ্য সংখ্যক টিকাদান কোম্পানী সরবরাহ বাড়াতে কাজ করছে। সুতরাং আগামী বছর আমরা একটি স্বাভাবিক শীতকাল পেতে পারি।

শাহীন ও তার স্ত্রী ওজলেম তুরেসি জার্মানের পশ্চিমাঞ্চলীয় নগরী মায়েঞ্জে ২০০৮ সালে বায়োএনটেক প্রতিষ্ঠা করেন। কোম্পানীটি মার্চ মাসে আমেরিকান ঔষধ কোম্পানী ফাইজারের সাথে অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে করোনার ভ্যাকসিন তৈরির কাজ শুরু করে। এদিকে সোমবার কোম্পানীটি করোনা প্রতিরোধে তাদের ভ্যাকসিন ৯০ শতাংশ কার্যকর বলে ঘোষণা করেছে।

এদিকে বায়োএনটেক এবং যুক্তরাষ্ট্রের ফাইজার চলতি বছরেই ৫ কোটি এবং ২০২১ সালে ১৩০ কোটি ডোজ করোনার প্রতিষেধক তৈরির কার্যক্রম এরই মধ্যে শুরু করে দিয়েছে জার্মানির বিভিন্ন স্থানে।


ঢাকা, সোমবার, নভেম্বর ১৬, ২০২০ (বিডিলাইভ২৪) // এস বি এই লেখাটি ৭৯৩ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন